,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

অবৈধ বিদেশিরা অভিনব সাইবার অপরাধে জড়িত

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ ঢাকা, দেশে অবৈধ বিদেশিরা অভিনব সাইবার অপরাধে জড়িত  । নাইজেরিয়া, ঘানা, উগান্ডাসহ ১৪টি দেশের নাগরিকরা বাংলাদেশে বিভিন্ন ধরনের অপরাধে জড়িত। গোয়েন্দা প্রতিবেদনের উদ্ধৃতি দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন, ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়। ভ্রমণ ভিসায় আসা এসব বিদেশিদের বেশিরভাগেরই ভিসার মেয়াদ শেষ। তারা জড়িয়ে পড়ছে জাল মুদ্রা তৈরি, এটিএম কার্ড জালিয়াতিসহ অভিনবসব সাইবার অপরাধে। বিদেশিদের অপরাধে জড়িয়ে পড়ার জন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীগুলোর নজরদারির ঘাটতিকে দায়ী করছেন অপরাধ বিজ্ঞানী হাফিজুর রহমা কার্জন। যদিও পুলিশ বলছে, তারা বিদেশীদের তথ্যভান্ডার তৈরি করছ

বাংলাদেশে কতজন বিদেশী নাগরিক অবস্থান করছে তার সঠিক পরিসংখ্যান নেই এখনো। বিনিয়োগ বোর্ড, এনজিও ব্যুরো, বেপজা ও ইমিগ্রেশন বিভাগের বিভিন্ন দপ্তরে থাকা আলাদা পরিসংখ্যানের সমন্বয়ে বলছে, এ সংখ্যা সাড়ে ১৬ হাজার। তবে অবৈধ বিদেশির সংখ্যা ১২ লাখের বেশী। যাদের নিয়ন্ত্রণে কোন সমন্বিত ব্যবস্থা নেই প্রশাসনিক দপ্তরগুলোতে।

নিয়মনীতির বালাই ছাড়া যেকোন বিদেশিকে বাসা ভাড়া দেয়ার ফলে আরো এ সঙ্কট। পুলিশের গোয়েন্দা প্রতিবেদন বলছে, এসব বিদেশি নাগরিকের পছন্দের এলাকা গুলশান, বনানী, রামপুরা, নিকুঞ্জ এবং উত্তরা। যেখানে বসে নির্বিঘ্নে হুন্ডি, জালমুদ্রা তৈরী, মাদক পাচারসহ নানা ধরনের প্রতারণায় জড়িত হচ্ছে তারা।

অপরাধ বিজ্ঞানীরা বলছেন, অর্থনৈতিক সক্ষমতা বাড়লে একটি দেশে বিদেশিদের আগমন বাড়ে। স্বাভাবিকভাবেই বাড়ে অপরাধ। তাই বিদেশিদের নিয়ন্ত্রণে এখন সক্ষমতা বাড়ানোর পরামর্শ তাদের।

বাংলাদেশে বিদেশি নাগরিকদের অপরাধের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় নড়েচড়ে বসেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীগুলো। বিদেশিদের অপরাধ দমনে তাদের ওয়ার্কপারমিট নিয়মিত পর্যবেক্ষণ এবং তাদের উপর নজরদারী বাড়ানোর বিকল্প নেই। বিষয়টি পুলিশ মানলেও, জনগনেরও এদের বিষয়ে সজাগ থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন পুলিশ কর্তারা।

 

বি এন আর/০০১৬০০৩০০৬/০০০৮৭/পি

মতামত...