,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

অলিম্পিক গেমসের উদ্বোধন

aআন্তর্জাতিক ডেস্ক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ অবশেষে পর্দা উঠলো ২০১৬ অলিম্পিক গেমসের। বাংলাদেশের স্থানীয় সময় শনিবার ভোর পাঁচটায় ব্রাজিলের রাজধানী রিও ডি জেনিরোর মারাকান স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে অলিম্পিক গেমসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এটি অলিম্পিক গেমসের ইতিহাসে ২৮তম আসর। ১৯১৬, ১৯৪০ ও ১৯৪৪ সালে প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কারণে অলিম্পিকের আসর অনুষ্ঠিত হয়নি।

ধারণা করা হচ্ছে টেলিভিশনের মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে ৩০০ কোটি মানুষ সরাসরি এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখার সুযোগ পাবেন। ২০৬টি দেশের পাশাপাশি এবারের আসরে অংশ নিচ্ছে শরণার্থীদের একটি দল। মোট ২৮টি বিভাগে প্রতিযোগিতা করবেন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা অ্যাথলেটরা। এবারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সফলভাবে আয়োজনের জন্য কাজ করেছেন ৩০০ নৃত্যশিল্পী, পাঁচ হাজার স্বেচ্ছাসেবী। তাঁদের জন্য তৈরি করা হয়েছে ১২ হাজার পোশাক।

আমাজনের অরণ্য ব্রাজিলের গর্ব। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তুলে ধরা হবে এই গর্বকে। বানর, ম্যাকাউ পাখি আর বৃষ্টির শব্দ ফুটিয়ে তোলার মাধ্যমে আমাজনকে সারা বিশ্বের কাছে তুলে ধরবে ব্রাজিলিয়ানরা। বৈশ্বিক উষ্ণায়নের ফলে জলবায়ু পরিবর্তন বর্তমান পৃথিবীর অন্যতম সমস্যা। আর এই সমস্যা নিয়েও সতর্ক করে দেওয়া হবে বিশেষ পারফরম্যান্সের মাধ্যমে।

এসবের পাশাপাশি উদ্বোধন অনুষ্ঠানের নিয়মিত আয়োজন তো থাকছেই। যেসবের মধ্যে আছে মশাল প্রজ্বালন, শপথ গ্রহণ, ক্রীড়াবিদদের প্যারেড। প্রায় ১১ হাজার অ্যাথলেটের মিলনমেলার বড় আকর্ষণ এই প্যারেডে বাংলাদেশের পতাকা বহন করবেন বিখ্যাত গলফার সিদ্দিকুর রহমান।

a

গলফার সিদ্দিকুরের হাতে বাংলাদেশের পতাকা

 যুক্তরাষ্ট্রের পতাকা থাকবে অলিম্পিকে রেকর্ড ১৮টি স্বর্ণজয়ী মাইকেল ফেল্পসের হাতে। যুক্তরাজ্যের হয়ে দায়িত্বটা পালন করবেন টেনিস তারকা অ্যান্ডি মারে। নোবেল বিজয়ী মুহাম্মদ ইউনূসেরও মশাল বহন করার কথা রয়েছে। ব্রাজিলের বিখ্যাত ফুটবলার পেলের মশাল প্রজ্বলনের কথা থাকলেও অসুস্থতার কারণে তিনি আসবেন না বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিবিসি।

এবারে অলিম্পিক গেমসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন ব্রাজিলের বিখ্যাত পরিচালক ফার্নান্দো মেইরেলেস। ২০০৪ সালে তাঁর ‘সিটি অব গড’ ছবিটি অস্কারের সেরা পরিচালক বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছিল।

২০৭টি দল থেকে ১০ হাজার ৫০০ অ্যাথলেট এবারের আসরে প্রতিযোগিতা করবেন। এবারই প্রথমবারের মত অলিম্পিকে অংশ নিচ্ছে কসোভো ও দক্ষিণ সুদান। এবারের অলিম্পিকে শরণার্থীদের যে দলটি অংশ নিচ্ছেন তাতে ১০ জন খেলোয়াড় রয়েছেন। এদের মধ্যে পাঁচজন এসেছেন দক্ষিণ সুদান থেকে, দুজন সিরিয়া থেকে, দুজন ডিআর কঙ্গো ও একজন এসেছেন ইথিওপিয়া থেকে।

রিও অলিম্পিক আসরের সবচেয়ে বড় দল যুক্তরাষ্ট্র। মোট ৫৫৪ জন মার্কিন খেলোয়াড় এবারের আসরে প্রতিযোগিতা করবেন। এবারের সর্বকনিষ্ঠ অ্যাথলেট ১৩ বছর বয়সী নেপালি সাঁতারু গৌরিকা সিং। যদিও দারিদ্র্যপীড়িত আো রাজনৈতিক সংকটে জর্জরিত ব্রাজিলে এত বড় আয়োজন নিয়ে চলছে সমালোচনা। বিক্ষোভকারীরা এই আয়োজনের বিরুদ্ধে নানা সময় বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন।

নিরবিচ্ছিন্ন নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে আয়োজন সমাপ্ত করার লক্ষ্যে ৫৫টি দেশের ৮৫ হাজারেরও বেশি নিরাপত্তা কর্মী কাজ করছেন ব্রাজিলিয় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে। রিও অলিম্পিক উপলক্ষে পাঁচ লাখেরও বেশি পর্যটক রিও ডি জেনিরো ও ব্রাজিলে আসবেন বলে আশা করা হচ্ছে। অলিম্পিকের বিভিন্ন আসরের খেলা দেখার জন্য ৭৫ লাখ টিকিট ছাপানো হয়েছে, যার মধ্যে ১০ লাখ এখনো অবিক্রিত রয়েছে।

 

মতামত...