,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

আতংকিত উপকুলবাসি, বসত ভিটা পিছনে ফেলে নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে!

upokol selter manমীর মুহাম্মদ নাছির উদ্দিন সিকদার, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ চট্টগ্রাম,  ঘূর্ণিঝড় ‘রোয়ানু’ দ্রুত বেগে বাংলাদেশ উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে। চট্টগ্রামে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত জারি করা হয়েছে। শনিস্নিবার বিকালে আঘাত হানতে পারে।  চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ শুক্রবার বিকেলে জারি করেছে এলার্ট-থ্রি ।

ঘূর্ণিঝড় ‘রোয়ানু’ ক্রমেই উপকূলের দিকে অগ্রসর হওয়ায় চট্টগ্রামের উপকূলীয় এলাকা থেকে লোকজনকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে আশ্রয় কেন্দ্রে।

ঘূর্ণিঝড়টি উত্তর পূর্ব দিকে থেকে অগ্রসর হয়ে চট্টগ্রামের দিকে এগিয়ে আসছে।এটি এখন চট্টগ্রাম থেকে ৩৯০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে য বিকাল নাগাদ আঘাত হান্তে পারে।

উপকূল-১ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশের উপকূলীয়  বরিশাল ও চট্টগ্রাম অতিক্রম কালে উপকূলীয় এলাকায় ৪ মিটারের বেশি জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা করছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে ভারী বৃষ্টিপাত হচ্ছে সারা দেশে।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন বলেন, আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় আছি। ঘূর্ণিঝড়টি বাঁশখালী-আনোয়ারা উপকূল দিয়ে আঘাত হানার সম্ভাবনা আছে। তাই সেখানকার বাসিন্দাদের মাইকিংয়ের মাধ্যমে সবাইকে সতর্ক করা হচ্ছে। বাঁশখালী-আনোয়ারার উপকূলীয় এলাকার লোকজনকে আশ্রয় কেন্দ্রে সরিয়ে আনা হয়েছে। উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তারা বিষয়টি তদারকি করছেন বলে ডিসি জানান।।

রোয়ানু’র প্রভাবে চট্টগ্রামে ৭, কক্সবাজার ৬ এবং মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরে ৫ নম্বর বিপদ সংকেত জারি করা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবেসারা দেশে হালকা বৃষ্টিপাত হচ্ছে।

চট্টগ্রাম বন্দরে ও বর্হিনোঙ্গরে পণ্য খালাস বন্ধ রয়েছে।

gurni procherচট্টগ্রাম বন্দরের সকল লাইটারেজ জাহাজকে বন্দর ছেড়ে আউটারে আশ্রয় গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে দু’দিন ধরে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে জনজীবনে দুর্ভোগ নেমে এসেছে।

আবহাওয়া অফিস জানায়, ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়তে পারে।

চট্টগ্রামের উপকূলীয় এলাকা আনোয়ারা, বাঁশখালী, সন্দ্বীপ, সীতাকুণ্ড এবং পতেঙ্গা এলাকায় ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানার খবরে চরম আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এসব এলাকার লোকজনকে সরে যেতে বিকাল থেকে মাইকিং করা হচ্ছে। অনেকে জীবন বাঁচাতে বসত ভিটা ফেলে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যাচ্ছে।

aজেলা প্রশাসন জানায়, ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানতে পারে এমন সম্ভাব্য এলাকার লোকজনকইয়,শুক্রবার রাতেই  সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

জেল্যেছপ্রশাসন নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলার পাশাপাশি সকল উপজেলায় খোলা হয়েছে কন্ট্রোলরুম। চট্টগ্রাম জেলা নিয়ন্ত্রণ কক্ষ এর নম্বর হচ্ছে ৬১১৫৪৫।

 

মতামত...