,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

ইয়াবা ও মাদকের রমরমা ব্যবসা সীতাকুন্ডে

a: কামরুল ইসলাম দুলু : সীতাকুন্ড প্রতিনিধি, বিডিনিউজ রিভিউজঃ চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের সর্বত্র ইয়াবা ও মাদকের রমরমা ব্যবসা চলছে। প্রশাসনের এক শ্রেণীর অসাধু লোকজনকে ম্যানেজ করেই এ ব্যবসা চালাচ্ছে মাদক ব্যবসায়ীরা। পুলিশী অভিযানে অনেকে ধরা পড়ে জেল হাজতে থাকলেও তাদের ব্যবসা থেমে নেই। বিভিন্ন কৌশলে তাদের ব্যবসা পরিচালিত হচ্ছে। উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য।এসব মাদকের গ্রাহক উঠতি বয়সী যুব সমাজ। উপজেলাজুড়ে প্রায় অর্ধশতাধিক মাদকের জমজমাট ব্যবসা চললেও প্রসাশনের তেমন নজর নেই বললেই চলে।মাঝে মধ্যে কেউ কেউ ধরা পড়লেও মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কথিত সোর্স ও পুলিশকে মাসোহারা দিয়ে চালিয়ে যাচ্ছে মাদক ব্যবসা।

অনুসন্ধানে জানাযায়, সীতাকুন্ডে ষাট শতাধিক মাদকের স্পর্ট থাকলেও মূল মাদক বেচা-বিক্রি নিয়ন্ত্রণ হয় জঙ্গল সলিমপুর, ওভারব্রিজ ফকিরহাট,পোর্টলিংক রোড এলাকার শুকতারা রেস্টুরেন্ট এলাকা।বিশেষ করে বার আউলিয়াস্হ ফুলতলা এলাকার পশ্চিমপাড়া মলইপাড়া গ্রামে বিশাল এক নের্টওয়াক রয়েছে ইয়াবা বিক্রির।এই মলইপাড়া গ্রামে ইয়াবা বিক্রি এখন ওপেন সিক্রেট। এখানে হাত বাড়ালে যখন তখন পাওয়া যায় ইয়াবা। এছাড়া ছোট কুমিরা, বাড়বকুন্ড, পৌর সদর, দক্ষিণ বাইপাস,
পন্হিছিলা,বড় দারোগারহাট উল্লেখযোগ্য। উপজেলার সর্বত্র মদ,গাজাঁ,ফেনসিডিল, ইয়াবা,দেশী-বিদেশীমদসহ হেরোইন বিক্রি হচ্ছে দেদারসে,স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা মরননেশা মাদকের প্রতি ঝুকেঁ পড়ছে বলে অনেক অভিভাবকের অভিযোগ। মাঝে মাঝে পুলিশী অভিযানের খবর পেয়ে এসব মাদক ব্যবসায়ীরা কৌশলে মোবাইলে যোগাযোগ করে নির্দিষ্ট স্হানে মাদক পৌঁছে দিচ্ছে।

সীতাকুন্ড মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ইফতেখার হাসান বলেন, গত একমাসে ২৫ জনেরও বেশী মাদক ব্যবসায়ী ও বহনকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলা হয়েছে ১৭/১৮ , পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

মতামত...