,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

উখিয়ার রোহিঙ্গাদের দখলে শ্রম বাজার

rohinga-childকায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া,বিডিনিউজ রিভিউজঃ উখিয়ার শ্রম বাজার দখলে নিয়েছে রোহিঙ্গারা। শিশু কিশোর যুবকেরা ক্যাম্পের বাহিরে এসে চায়ের দোকানে, সমুদ্রে মাছ ধরা, কৃষি কাজে শ্রমিক হিসাবে ব্যবহার ও ওয়ার্ক সফে কাজ করছে এসব রোহিঙ্গারা। এ উপজেলার কুতুপালং গ্রামের বন ভুমির পাহাড় কেটে বসবাস করছে রেজিষ্ট্রাট ও আনরেজিষ্ট্রাট অর্ধলক্ষাধিক রোহিঙ্গা। রেজিষ্ট্রাট রোহিঙ্গারা সরকারী ভাবে রেশন সামগ্রী পেয়ে থাকলেও আনরেজিষ্ট্রাট রোহিঙ্গারা সরকারের বা সংশ্লিষ্ট এনজিও সংস্থার কাছ থেকে কোন প্রকার রেশন সামগ্রী না পাওয়ায় তারা ক্যাম্পের বাহিরে গিয়ে কাজ করতে হচ্ছে।
১৯৯১ সালের শেষের দিকে মিয়ানমারের সামরিক সরকার অত্যাচার ও নির্যাতন করার অজুহাত তোলে প্রায় আড়াই লক্ষাধিক রোহিঙ্গা এ দেশে চলে আসে। বেশির ভাগ রোহিঙ্গা মিয়ানমারে ফেরত গেলেও উখিয়াতে রেজিষ্ট্রাট ও আনরেজিষ্ট্রাট অর্ধলক্ষাধিক রোহিঙ্গা কুতুপালং ক্যাম্প এলাকায় অবস্থান করছে। এ খানে রোহিঙ্গাদের কে দুই ভাগে বিভক্ত করে রাখা হয়েছে। তাদের নিয়ন্ত্রন করার জন্য গঠন করা হয়েছে ক্যাম্প ম্যানেজমেন্ট কমিটি। আনরেজিষ্ট্রাট রোহিঙ্গাদের ম্যানেজমেন্ট কমিটির সভাপতি আবু ছিদ্দিক ও সাধারন সম্পাদক নুর মোহাম্মদ কে দিতে হয় মাসিক মাষোয়ারা না দিলে ওই সব রোহিঙ্গারা ক্যাম্পের বাহিরে গিয়ে কাজ কর্ম করতে পারে না। যার ফলে ওই সব আনরেজিষ্ট্রাট রোহিঙ্গাদের সাগরের মাছ শিকার, চায়ের দোকানের কর্মচারী, কৃষি কাজ, গ্রীল ওয়ার্ক সফে কাজ করতে বাধ্য হয়। এ কারনে বলতে গেলে উখিয়ার শ্রম বাজার দখল করে নিয়েছে রোহিঙ্গারা। উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প ইনচার্জ শাকিল আরমান বলেন, আমরা যেহেতু, রেজিষ্ট্রাট রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করি, আনরেজিষ্ট্রাট রোহিঙ্গারা কি করছে না করছে তা আমার জানা নেই।

মতামত...