,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

উন্নয়ন এগিয়ে নিতে সবার সহযোগিতা চাই : শেখ হাসিনা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম::টানা নয় বছর ধরে সরকারপ্রধানের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে জীবনের স্বাভাবিক ছন্দ না থাকায় আক্ষেপ ঝরেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কণ্ঠে। গণভবনে গতকাল বৃহস্পতিবার উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠনে চাঁদপুর জেলায় ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী হাসতে হাসতে শোনান সেই আক্ষেপের কথা। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নিজের অনেক ইচ্ছাকেও জলাঞ্জলি দিতে হয়েছে বঙ্গবন্ধু কন্যাকে। আগে সড়ক পথে বিভিন্ন জেলায় সফরে গেলেও এখন অধিকাংশ সময়েই তাকে হেলিকপ্টার ব্যবহার করতে হচ্ছে।

গণভবনে এই মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান থেকে প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বরগুনা, ঝিনাইদহ, হবিগঞ্জ, গাইবান্ধা এবং চাঁদপুরে স্থানীয় কর্মজীবীদের সঙ্গে কথা বলেন এবং সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সম্পর্কে স্থানীয় জনগণকে অবহিত করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, প্রধানমন্ত্রী হয়ে তো কপাল পুড়ে গেছে। আগে যে রাস্তায় যেতাম, তাও নাই, আবার আকাশ দিয়ে উড়ে যেতে হয়। আকাশ দিয়ে উড়ে যাওয়ার ফলে রাস্তার মজাটাই পাওয়া যাচ্ছে না। এটাই হল দুর্ভাগ্য। বিভিন্ন সময় যাত্রাপথে ফেরি কিংবা লঞ্চঘাটে মিষ্টি, পেঁয়াজুর মতো মুখরোচক খাবারের কথাও বলেন সরকারপ্রধান।

তিনি বলেন, প্রত্যেক ফেরি ঘাটে থেমে থেমে সেখানে কোন ফেরি ঘাটে কোন মিষ্টি ভালো, কোন খাবারটা ভালো, কোথাকার কোন পেঁয়াজুটা ভালো, সে খবর পেতাম। এখন সেটা আর কপালে হয় না। সেটাই হল দুর্ভাগ্য।

উন্নয়ন এগিয়ে নিতে সবার সহযোগিতা চাইসরকারের উন্নয়ন কর্মসূচিগুলো সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য সবার সহযোগিতা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, উন্নয়ন কর্মসূচিগুলো যেন সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হয়; সজন্য সকলের সহযোগিতা একান্তভাবে দরকার।

সরকারের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি ভবিষ্যত কর্মপরিকল্পনা জানানো, সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জনে সরকারের সাফল্যের প্রচার ও টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করা এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিক নেতৃবৃন্দ ও সরকারি কর্মকর্তাদের যৌথ অংশগ্রহণে স্থানীয় সমস্যা সম্পর্কে মতবিনিময়ের জন্যই এ মেলার আয়োজন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের উন্নয়নটা হচ্ছে সার্বিকভাবে সকল জনগণের জন্য। আর বিশেষ করে আমাদের গ্রামের মানুষের জন্য। আমরা প্রতিটি গ্রামকে দারিদ্র্যমুক্ত করতে চাই; চলাফেরার জন্য রাস্তাঘাট উন্নত করতে চাই। উন্নয়ন মানে হচ্ছে জনগণের উন্নয়ন। গ্রামের মানুষ, তৃণমূল পর্যায়ের মানুষের উন্নয়ন। এই উন্নয়ন হচ্ছে সার্বিকভাবে (দেশকে) বিশ্ব দরবারে সম্মানজনক অবস্থানে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান।

মতামত...