,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

কক্সবাজারের নিখোঁজ ৭৪ জেলে ফিরেনি এক মাসেও

cকক্সবাজার প্রতিনিধি, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম: কক্সবাজারের নিখোঁজ ৭৪ জেলে ফিরেনি এক মাসেও। গত ৬ নভেম্বর বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড় ‘নাডা’র কবলে পড়ে নিখোঁজ হন তারা। এখন নিখোঁজ জেলেদের পরিবারে চলছে শোকের মাতম।
প্রসঙ্গত, বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড় ‘নাডা’র কবলে পড়ে কক্সবাজারের ১৮টি ফিশিং বোটসহ দেড় শতাধিক জেলে নিখোঁজ হয়। পরে বিভিন্ন উপায়ে নিখোঁজ জেলেদের অনেকে উদ্ধার হয়ে ফিরে আসে। সর্বশেষ গত সোমবার ২৪ দিন পর উখিয়ার ঘাটঘর এলাকার ছুরা আলমের মালিকানাধীন একটি ফিশিং বোটের নিখোঁজ ৭ মাঝিমাল্লার মধ্যে ৫ জন জীবিত অবস্থায় ফিরে আসে। বাকী দুইজনও জীবিত উদ্ধার হয়ে মিয়ানমারে রয়েছে বলে ওই ট্রলারের মাঝি জানান। উদ্ধারপ্রাপ্তদের ধারণা, তাদের মতই বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় অনেক জেলে ট্রলার নিয়ে গভীর সাগরে ভাসমান রয়েছে। এদের মধ্যে থাকতে পারে কক্সবাজার শহরের নিখোঁজ ৭৪ জেলেও। যাদের সকলেরই বাড়ি শহরের ১ নং ওয়ার্ডে। ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এসআইএম আকতার কামাল জানান, বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে যাওয়া ১নং ওয়ার্ডের নিখোঁজ ৭৪ জন জেলের পরিবারে এখন চলছে শোকের মাতম। কেউ আদরের সন্তানকে হারিয়ে, কেউবা প্রিয়তম স্বামীকে হারিয়ে হয়ে পড়েছেন নির্বাক। এসব পরিবারে চলছে আহাজারি। তাদের বুকফাটা কান্নায় ভারি হয়ে উঠেছে এলাকার পরিবেশ। শোকার্ত পরিবারগুলোর পাশাপাশি কাঁদছে তাদের প্রতিবেশীরাও। পুরো এলাকা জুড়ে এখন শুধুই কান্নার রোল।
কক্সবাজার জেলা ফিশিং বোট মালিকসূত্রে জানা গেছে, সাগরে মাছ ধরার উপর নিষেধাজ্ঞা ওঠে যাওয়ার পর গত ৩ নভেম্বর বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে গিয়ে ঘূর্ণিঝড় ‘নাডা’র কবলে পড়ে ফিরেনি এফবি সাজ্জাদ, এফবি রেশমি, এফবি জায়েদ ফিশিং বোটসহ মোট ১৮টি ট্রলার। এগুলোতে ছিল দেড় শতাধিক মাঝিমাল্ল। নিখোঁজ হয়ে যায়। এরমধ্যে নিখোঁজ ৭৪ জেলে এখনও ফির আসেনি।
নিখোঁজ ৭৪ জেলের মধ্যে রয়েছে এফবি সাজ্জাদ ফিশিং ট্রলারের ছৈয়দ মাঝি ও জামাল মাঝির নেতৃত্বে ২৯ জন, এফবি জায়েদ ফিশিং ট্রলারের মোক্তার মাঝির নেতৃত্বে ১৬ জন এবং এফবি সুমি ফিশিং ট্রলারের মিনহাজ মাঝির নেতৃত্বে ২৬ জন জেলে।

মতামত...