,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

কক্সবাজারের লবণ ও শুটকি চাষির সাথে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী

আবদুর রাজ্জাক, কক্সবাজার,বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর তনয়া জননেত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ১৯ নভেম্বর শনিবার দুপুরে বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন ষ্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠানে কক্সবাজার জেলার লবণ ও শুটকি চাষির সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কথা বলেন। এর আগে জেলা প্রশাসক মো: আলী হোসেন প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে তাঁর প্রারম্ভিক বক্তব্য রাখেন।
এ উপলক্ষে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের উদ্দ্যেগে কক্সবাজার বীর শ্রেষ্ট শহীদ রুহুল আমিন স্টেডিয়ামে বিরাট প্যান্ডেল নির্মাণ করা হয় এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্টদের প্রতি ‘ভিডিও কনফারেন্স’ কার্ড ইস্যু করা হয়। সকাল সাড়ে নয়টা থেকে উদ্দীপনামূলক গান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, উগ্র সাম্প্রাদায়িকতা প্রতিরোধ ও উন্নয়নমূলক কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা হয়। এর আগে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্টদের প্রতি ‘ভিডিও কনফারেন্স’ কার্ড ইস্যু করা হয়। প্রধানমন্ত্রী ১১টার কক্সবাজার জেলাবাসীর সাথে কনফারেন্সে আসার কথা থাকলেও চট্টগ্রামের বিভিন্ন জেলার সাধারণ মানুষের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলায় যথাসময়ে জেলাবাসীর সাথে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হননি পরে তাদের সাথে কথা শেষ করে দুপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে সরাসরি কথা বলেছেন কক্সবাজারের দুই সৌভাগ্যবান ব্যক্তি। পরে প্রধানমন্ত্রী সভাস্থল থেকে একজন শুটকি ও লবন চাষীর সঙ্গে কথা বলার ইচ্ছে পোষণ করলে বক্তব্য রাখেন শুটকি উৎপাদনকারী আতিক উল্লাহ এবং লবন চাষি হাবিব উল্লাহ। আতিক উল্লাহ শুটকি মাছ সংরক্ষণের জন্য একটি কোল স্টোর নির্মাণের দাবী জানান।আর হাবিব উল্লাহ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমরা লবনের সঠিক মূল্য পাচ্ছি না। মিল মালিকেরা ৪০-৪২ টাকা কেজিতে লবন বিক্রী করলেও আমাদেরকে দিচ্ছে মাত্র ১০টাকা করে। আপনার পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঈদগাঁওর লবন শিল্পকে বাঁচাতে অনেক কষ্ট করেছেন। এই জন্য ঈদগাঁওতে বঙ্গবন্ধুর নামে একটি লবন শিল্পকারখানা স্থাপন করা হোক। তাঁদের বক্তব্য শুনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এসব বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। ভিডিও কনফারেন্সের এই ভার্চুয়াল জনসভা বাংলাদেশ টেলিভিশন, বেতার ও স্থানীয় কেবল নেটওয়ার্কে সরাসরি সম্প্রচার করেন।
সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, উগ্র সাম্প্রদায়িকতা প্রতিরোধ এবং উন্নয়নমূলক কার্যক্রম বিষয়ে দেশের প্রথম ও সর্ববৃহৎ ‘ভার্চুয়াল জনসভা’ শহরের কক্সবাজার বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন স্টেডিয়াম থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কথা বলতে পেরে সকল লবন ও শুটকি চাষীরা নিজেদেরকে উৎফুল্ল মনে করে দারুন খুশি হয়েছেন এবং লবনের ন্যায্য দাম পাওয়ায় আশ্বাস পাওয়া এবং বিভিন্ন পয়েন্টে সুপরিসরে শুটকি মহাল স্থাপন ও যোগাযোগের সুব্যবস্থা নিশ্চিত করার ঘোষনা দেওয়া সকল চাষীরা বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর তনয়া জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানন।
কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত এই ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল ও আশেক উল্লাহ রফিক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) কাজি মো: আবদুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো: আনোয়ারুল নাসের, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) সাইফুল ইসলাম মজুমদার, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এড.সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যান, কক্সবাজার পুলিশ সুপার শ্যামল কুমার নাথ, কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের, সাধারণ সম্পাদক জাহেদ সরওয়ার সোহেল, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও বিজিবির পদস্থ সরকারী কর্মকর্তা, আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দসহ নানা শ্রেণির অন্তত ৫ হাজার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
এব্যাপারে জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন জানান, সকল উপজেলার জনগণ যাতে ভিডিও কনফারেন্স দেখতে পায় সে ব্যাপারে জেলা প্রশাসেনের পক্ষ থেকে সব ধরণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যেসব স্কুল-কলেজে ল্যাপটপ ও মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর আছে, সেখানেও ভিডিও কনফারেন্স দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়েছিল। তাই কক্সবাজার বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন স্টেডিয়াম সহ জেলার ৮ উপজেলায় প্রায় ৭‘শত ২৪ টি প্রজেক্টরের সাহায্যে অন্তত ৫ লক্ষ মানুষ সরাসরি এ অনুষ্ঠানটি সরাসরি উপভোগ করেন।

মতামত...