,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

কনকনে শীত উপেক্ষা করে লাখো মুসল্লি তুরাগ তীরে, আখেরি মোনাজাত আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ১৫ বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে রবিবার শেষ হচ্ছে তাবলীগ জামাতের তিন দিনব্যাপী ৫২তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। তাই প্রচণ্ড শীত উপেক্ষা করে দেশ-বিদেশের নানা প্রান্ত থেকে তুরাগ তীরে হাজির হয়েছেন লাখো ধর্মপ্রাণ মুসলিম জনতা। বর্তমানে ইজতেমা ময়দান এলাকাজুড়ে এক পুণ্যময় পরিবেশ বিরাজ করছে।

রবিবার বেলা ১১টা থেকে ১১.৩০টার মধ্যে আখেরি মুনাজাতের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। মোনাজাত পরিচালনা করবেন ভারতের মাওলানা মোহাম্মদ সাদ।

দুনিয়া ও আখিরাতের শান্তি কামনার পাশাপাশি বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সমৃদ্ধি, সংহতি, অগ্রগতি এবং দেশ ও জাতির সার্বিক কল্যাণে মোনাজাত করবেন। মোনাজাতের আগে তিনি ঈমান ও আমলের ওপর বিভিন্ন হেদায়েতী বয়ান করবেন বলে জানা গেছে।

আগামী ২০ জানুয়ারি দ্বিতীয় দফায় তিন দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমা শুরু হবে এবং ২২ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে আখেরী মোনাজাত।

রাজধানীর উপকন্ঠে টঙ্গীর তুরাগ নদের তীরে অনুষ্ঠিত বহু কাঙ্খিত এই আখেরি মোনাজাতে লাখ লাখ ধর্ম প্রাণ মুসল্লী মহান রাব্বুল আলামীনের দরবারে রহমত ও হেদায়েত প্রার্থনা করবেন। নিজ নিজ গুনাহ্ মাফ, আত্মশুদ্ধি ও ইবাদত বন্দেগী করতে ইজতেমা ময়দানে হাজার হাজার মুসল্লি অবস্থান নিয়েছে।

শনিবার বাদ ফজর থেকে আল্লাহ পাকের অশেষ মহিমায় আবেগ-অপ্লুত লাখো মুসল্লির কণ্ঠে উচ্চারিত ‘আমিন, আমিন’ ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠছে তুরাগ নদের তীর। অশ্রুসিক্ত নয়নে আল্লাহর কাছে আত্মসমর্পণে ব্যাকুল হয়ে ইজতেমা ময়দানে অবস্থান নিয়েছেন হাজার হাজার মুসল্লী।

প্রথম পর্বের তিন দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমায় আখেরী মোনাজাতে বহির্বিশ্বের প্রায় ২০ সহস্রাধিক মুসল্লিসহ প্রায় ৪০ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি মোনাজাতে অংশ নিবেন বলে অনুমান করা হচ্ছে।

বিশ্ব ইজতেমা প্রথম দফায় তিন দিনব্যাপি মুসলিম বিশ্বের এই দ্বিতীয় বৃহত্তম জমায়েতের শেষ দিনে রবিবারের আখেরি মোনাজাতে শামিল হতে শনিবার ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা রাজধানী ঢাকা ছাড়াও পার্শ্ববর্তী গাজীপুর, নরসিংদী, ভৈরব, সাভার, মানিকগঞ্জ, কালিয়াকৈর,কালীগঞ্জ, শ্রীপুর, কাপাসিয়াসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ইজতেমা ময়দানে ট্রেন, বাস, ট্রাক, মাইক্রোবাস, জীপ, কার এবং নৌকাসহ নানা ধরনের যানবাহনে ইজতেমা ময়দানের দিকে ছুটে আসছেন।

এছাড়া রবিবার ভোর থেকেই রাজধানীর খিলতেস্থ বিশ্বরোড থেকে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হবে। রবিবার ঢাকা থেকে আরো বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে রেলপথ বিভাগ।

এদিকে মোনাজাতে অংশ নিতে যাতে মুসল্লীদের সুবিধা হয় তার জন্যে আজমপুর, উত্তরাসহ আশ- পাশের ১০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বিশেষ মাইকের ব্যবস্থা করবে জেলা প্রশাসন।

রবিবার আখেরি মোনাজাতের দিন পথনির্দেশনা

আশুলিয়া থেকে আব্দুল্লাহপুরগামী যানবাহনসমূহ আব্দুল্লাহপুর না এসে ধউর ব্রিজ ক্রসিং দিয়ে ডানে মোড় নিয়ে মিরপুর বেড়িবাঁধ দিয়ে চলাচল করবে।

মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে আব্দুল্লাহপুরগামী আন্তজেলা বাস, ট্রাক, কভার্ডভ্যানসহ সব ধরনের যানবাহন মহাখালী ক্রসিংয় বামে মোড় নিয়ে বিজয় সরণি-গাবতলী দিয়ে চলাচল করবে।

কাকলী, মিরপুর থেকে আগত যানবাহন এয়ারপোর্টের দিকে না গিয়ে হোটেল রেডিসন গ্যাপ এবং কুড়িল বিশ্বরোডে ইউটার্ন করে বা ফ্লাইওভার হয়ে প্রগতি সরণি দিয়ে চলাচল করবে।

প্রগতি সরণি থেকে আব্দুল্লাহপুরগামী যানবাহন বিশ্বরোড ক্রসিংয়ে ইউটার্ন করে বা ফ্লাইওভার দিয়ে কাকলী-মহাখালী রোড ও মিরপুর ফ্লাইওভার দিয়ে চলাচল করবে।

মতামত...