,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

‘কুতুবদিয়া চ্যানেলে’ যাত্রীবাহী লঞ্চ ডুবি কোটি টাকা ক্ষয়ক্ষতি

lআবদুর রাজ্জাক,কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি, বিডিনিউজ রিভিউজঃ কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় যাত্রীবাহী লঞ্চ ডুবির ঘটনায় সকল যাত্রীকে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি বলে পুলিশ সুত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

ঘটনার পর সাকিব (১৩) নামে এক কিশোর নিখোঁজ হলেও পরে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান তার চাচা হেলাল উদ্দিন। ২০ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টায় কুতুবদিয়া উপজেলার সাগর তীরবর্তী উত্তর ধুরুং আকবর বলির ঘাট এলাকায় মালবাহি এ লঞ্চটি ডুবে গেলে এঘটনা ঘটেছিল। লঞ্চটিতে থাকা ৫০/৬০ জন যাত্রীর সবাই নিরাপদে তীরে উঠতে সক্ষম হয়েছে।

চট্টগ্রাম থেকে মালামাল ও যাত্রী নিয়ে লঞ্চটি কুতুবদিয়া যাওয়ার পর প্রথমে কিছু যাত্রী উত্তর ধুরুং এলাকার একটি ঘাটে নামিয়ে দেয়। এর পর বাকী যাত্রী এবং মালামাল নিয়ে আকবর বলির ঘাটে যাওয়ার সময় হঠাৎ লঞ্চটি ডুবে যায়। এসময় লঞ্চে থাকা যাত্রীরা সাঁতার কেটে তীরে উঠতে সক্ষম হলেও লঞ্চে থাকা মাল গুলো সাগরে তলিয়ে যায়। ধুরুং বাজারের ব্যবসায়ি আলা উদ্দিন আল আজাদ জানান, ধূরুং বাজারের ব্যবসায়িদের প্রায় ১ কোটি টাকার মালামাল ডুবে গিয়ে তারা টরম ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কুতুব দিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অংসা থোয়াই জানান, লঞ্চে থাকা যাত্রীরা সবাই নিরাপদে তীরে উঠতে সক্ষম হয়েছে।

সাকিব (১৩) নামের এক কিশোর নিখোঁজ থাকলেও পরে অক্ষত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান সাকিবের চাচা হেলাল উদ্দিন।

তিনি আরো জানান, কুতুবদিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে ফায়ার সার্ভিস ও কোষ্টগার্ডের ডুবরি দল বিকাল ৩টার দিকে লঞ্চটিকে টেনে তীরে নিয়ে এসেছে । এর পর তল্লাশি করে সেখানে কোন মৃতদেহ আছে কিনা তা জানা যাবে। কুতুবদিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সালেহ গাজী তানভীর জানান,সম্ভবত প্রথম ঘাটে যাত্রী নামিয়ে দেওয়ার পর লঞ্চের একপাশ কাত হয়ে ডুবে যায়। তবুও বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে বলে জানান তিনি ।

মতামত...