,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে ইউপিডিএফ-সেনাবাহিনী বন্দুকয্দ্ধু অস্ত্র উদ্ধার

খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা, ২২ আগস্ট, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: খাগড়াছড়ির মহালছড়ি উপজেলার লেমুছড়ি নামক এক পাহাড়ি এলাকায় রবিবার দিবাগত রাতে পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক দল ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) সাথে সেনাবাহিনীর বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। এ বন্দুকযুদ্ধে হতাহতের কোনো ঘটনা না ঘটলেও সেনাবাহিনী অভিযান চালিয়ে ঐ এলাক থেকে বিদেশি অস্ত্র, গোলাবারুদসহ সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত বিভিন্ন সামরিক সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে। খাগড়াছড়ি সদর সেনা রিজিয়নের স্টাফ অফিসার (জি–টু–আই) মেজর মুজাহিদুল ইসলাম সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সেনাবাহিনী ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, মহালছড়ি উপজেলা সদর হতে প্রায় তিন কিলোমিটার উত্তরে লেমুছড়ি নামক এলাকায় ইউপিডিএফের একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী অবস্থান করার গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রবিবার দিবাগত রাত দু’টার দিকে সেনাবাহিনী ঐ এলাকায় অভিযানে যায়। আস্তানার কাছাকাছি পৌঁছুলে ইউপিডিএফের সন্ত্রাসীরা সেনাবাহিনীর ওপর এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু করে। এসময় সেনাবাহিনীও আত্মরক্ষায় পাল্টা গুলি চালায়। কয়েক মিনিটের বন্দুকযুদ্ধের পর সন্ত্রাসীরা গভীর জঙ্গলে পালিয়ে যায়। পরে ঐ এলাকায় তল্লাশী করে সন্ত্রাসীদের ফেলে যাওয়া একটি অত্যাধুনিক আমেরিকান কোল্ট রাইফেল, কোল্ট রাইফেলের ৬ রাউন্ড গুলি, ১টি ম্যাগজিন, ৪ রাউন্ড গুলিসহ একটি বিদেশি পিস্তল ও পিস্তলের একটি ম্যাগজিন এবং বিপুল পরিমাণ বিভিন্ন সামরিক সরঞ্জাম উদ্ধার করে সেনাবাহিনী। মহালছড়ি জোনের সেনা কর্মকর্তা মেজর সালেহ বিন শফি’র নেতৃত্বে অভিযানটি পরিচালিত হয়। সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, অভিযান চলাকালে সেনাবাহিনী ২৬ রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে। স্থানীয় সূত্রগুলো জানায়, মহালছড়িটি ইউপিডিএফের অন্যতম নিয়ন্ত্রিত এলাকা হিসেবে পরিচিত।

মতামত...