,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

গণতন্ত্রের জন্য মানুষ হত্যা করতে হয় না:সৈয়দ আশরাফ

742নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা,৫, জানুয়ারি (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম)::শান্তিপূর্ণ ভাবে রাজনীতি ও রাষ্ট্রনীতি নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, গণতন্ত্রের জন্য মানুষ হত্যা করতে হয় না। ।

 

মঙ্গলবার দুপুরে ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ উপলক্ষে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

সৈয়দ আশরাফ খালেদা জিয়ার উদ্দেশে বলেন, গত ৫ জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত আপনি ৬৪ জন মানুষকে হত্যা করলেন। ১৫০০ লোককে আহত করলেন।অর্থনীতির ক্ষতি হল ১৭ হাজার ১৫০ কোটি টাকা।গাড়ি পোড়ালেন ৭০০।সমস্ত ভর্তি পরীক্ষা আপনি বন্ধ করলেন।এসব কীসের জন্য? গণতন্ত্রের জন্য? গণতন্ত্রের জন্য মানুষ হত্যা করতে হয় না। গণতন্ত্রের জন্য ৭০০ গাড়ি পোড়ানোর প্রয়োজন হয় না? আপনি চেয়েছিলেন, বাংলাদেশটাকে যেন অকার্যকর রাষ্ট্র করতে পারেন। আরো চেয়েছিলেন, দেশ যাতে এগিয়ে যেতে না পারে। আপনি রক্তের হোলি খেলা খেলেছেন। এই বাংলাদেশের মাটিতে বাঙালি জাতি কোনোদিনই আপনার অপকর্ম ভুলে যাবে না।

 

তিনি বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আসুন, আমরা শান্তিপূর্ণভাবে রাজনীতি ও রাষ্ট্রনীতি এগিয়ে নিয়ে যাই। নির্বাচন হবে, নির্বাচন সুষ্ঠু হবে। সেই নির্বাচনে প্রাণহানির প্রয়োজন হবে না।জননেত্রী শেখ হাসিনা সেই গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে।

 

সমাবেশে উপস্থিতি হওয়ার জন্য সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রস্তুতি ছিল কম।শুধু একবার ডাক দেওয়া হয়েছে। তারপরও এই বিশাল সমাবেশ হয়েছে।এই জনগণই হল আওয়ামী লীগের শক্তি, শেখ হাসিনার শক্তি। ইনশাআল্লাহ, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা দেশটাকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব।আমরা দেশটাকে আরো শক্তিশালী হিসেবে গড়ে তুলব।শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গণতন্ত্রকে আরো শক্তিশালী করতে পারব।’

 

আগামী ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে সেদিন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে রেসকোর্স ময়দানে বিশাল সমাবেশের আয়োজন করা হবে বলেও জানান সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। ওই সমাবেশে উপস্থিত থাকতে নেতা-কর্মীদের প্রতিও আহ্বান জানান তিনি।

 

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার সঞ্চালনায় সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আইন বিষয়ক সম্পাদক আবদুল মতিন খসরু, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ আজিজ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, হাজী মো. সেলিম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওছার, ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ, ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট প্রমুখ।

 

মতামত...