,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামের চন্দ্রনগরে ৭ শ দুঃস্থ পরিবারের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করলেন মেয়র

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ  রহমত মাগফেরাত ও নাজাতের পবিত্র রমজান মাসে রোজাদার দুঃস্থদের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত আছে। ১১ জুন শনিবার, সকালে নগরীর ২ নং জালালাবাদ ওয়ার্ড চন্দ্রনগর ইউনিট আওয়ামীলীগের উদ্যোগে চন্দ্রনগর আবাসিক এলাকায় দুঃস্থ রোজাদারদের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ উপলক্ষে এক সুধি সমাবেশ স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা মো. বাহার উদ্দিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন। সমাবেশে স্থানীয় কাউন্সিলর সাহেদ ইকবাল বাবু, সাবেক কাউন্সিলর ফরিদ আহমদ চৌধুরী ও মাওলানা মো. এনায়েত বক্তব্য রাখেন। সমাবেশে জাতীয় শ্রমিক লীগ চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি বখতিয়ার উদ্দিন খান, ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, বঙ্গবন্ধু প্রজন্ম লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এ এম মহিউদ্দিন, জালালাবাদ ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. নাজিম উদ্দিন, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রামের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিম, যুবলীগ নেতা সামসুদ্দিন বাদল ও মো. আনোয়ার হোসেন সহ চন্দ্রনগর আওয়ামীলীগ, আওয়ামী যুবলীগ ও ছাত্রলীগের বিভিন্নস্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন ৭ শত দুঃস্থদের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করেন।

ইফতারী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষনে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, দারিদ্রতা কোন অভিশাপ নয়। দরিদ্র পরিবারের সন্তানরা মানুষের মত মানুষ হয়ে উপার্জন করতে সক্ষম হলে দারিদ্রতা দুর হয়ে যাবে। দরিদ্রদের হতাশাগ্রস্ত হয়ে নিমর্জিত হাত-পা গুটিয়ে বসে থাকলে চলবে না। দু’হাতকে কর্মীর হাতে পরিনত করতে হবে। উপার্জনের উপায় খুঁজে বের করতে হবে। সন্তানদের লেখাপড়া করতে উৎসাহিত করতে হবে। মেধা ও প্রতিভা থাকলে দরিদ্র পরিবারের সন্তানই একদিন ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার সহ দেশের খ্যাতমান একজন ব্যক্তি হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত হতে পারবে। প্রসঙ্গক্রমে মেয়র বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার দারিদ্র বিমোচনে সামাজিক বেষ্টুনী গড়ে তুলেছেন। ইতোমধ্যে বাংলাদেশে দারিদ্রের হার কমে ২২ ভাগে নেমে এসেছে। ২০২০-২০২১ সনে এ হার কমে ১৪ ভাগে চলে আসবে। গরীববান্ধব শেখ হাসিনার সরকারকে সহযোগিতার আহবান জানান মেয়র।

মতামত...