,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে ৪৫ স্কুল ছাত্র স্মরণে স্মৃতিস্বম্ভ “অন্তিম”

abnr ad 250x70 1মিরসরাই সংবাদদাতা, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃচট্টগ্রাম, চট্টগ্রামের মিরসরাই ট্র্যাজেডীতে নিহত ৪৫ ছাত্র স্মরণে দুর্ঘটনাস্থলে স্মৃতিস্তম্ভ অন্তিম এর উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার উপজেলার বড়তাকিয়া-আবুতোরাব সড়কের সৈদালী এলাকায় আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি।

মায়ানী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কবির নিজামীর সঞ্চালনায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ আতাউর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম, সহ-সভাপতি জিতেন্দ্র প্রসাদ নাথ মন্টু, যুগ্ন সম্পাদক জসীম উদ্দিন, মিরসরাই কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল আবছার, আবুতোরাব উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাফর সাদেক, প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌস হোসেন আরিফ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এম আলা উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির চৌধূরী, প্রাক্তন মিরসরাই পৌর মেয়র এম শাহজাহান, খৈয়াছরা ইউপি চেয়ারম্যান জাহেদ ইকবাল চৌধূরী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রীর পিএস ফয়েজ আহম্মদ, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দীপক রঞ্জন অধিকারী, সচিব শাব্বির ইকবাল, সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী মোঃ আনিসুর রহমান, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মধুসূধন দেবনাথ, অন্তিম এর ডিজাইনার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের শিক্ষক সাইফুল কবির, মঘাদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শাহীনুল কাদের চৌধুরী, মিঠানালা ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ খায়রুল আলম, মঘাদিয়া ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসাইন মাষ্টার, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক নুরুল মোস্তফা মানিক।a

‘অন্তিম’ এর ডিজাইনার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের শিক্ষক সাইফুল কবির বলেন, চারপাশে পানি। মাঝে বৃত্তাকার বেদির ওপর ২০ ফুট উচ্চতার স্তম্ভ। মূল স্তম্ভ ঘিরে পর্যায়ক্রমে উঠে গেছে সাত ফুট উচ্চতার সাতটি আয়তাকার পিলার। সপ্তম পিলারের ওপর থেকে উপ-বৃত্তাকার উড়ালপথে ছয় ধাপের একটি সিঁড়ি লেগেছে মূল স্তম্ভের মাঝামাঝি গিয়ে। ৫ নম্বর পিলারের ওপর থেকে একটি ভাঙা স্টেট মূল স্তম্ভের গায়ে হেলে আছে। পাশে আছে একটি আয়তাকার পিলার। যেখানে রয়েছে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত সেই ৪৫ ছাত্রের ছবি। বৃত্তাকার মূল বেদির তৃতীয় ধাপটির মাঝে জলাধার। চোখের জলের মাঝে জেগে আছ তোমরা এমন ধারণা থেকেই চারিদিকে জলাধার রেখে বড়তাকিয়া-আবুতোরাব সড়কের সৈদালীতে তৈরি হয়েছে স্মৃতিস্তম্ভ ‘অন্তিম’। ট্র্যাজেডিতে নিহত ৪৫ ছাত্রের স্মরণে দুর্ঘটনাস্থলেই নির্মাণ করা হচ্ছে এই স্মৃতিস্তম্ভ। দুর্ঘটনার চার বছর পর গত বছরের নভেম্বরে নির্মাণকাজ শুরু হয় স্মৃতি স্তম্ভটির।

মায়ানী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কবির নিজামী বলেন, ‘মিরসরাই ট্র্যাজেডি দাগ কেটেছিল সারাদেশে। একসঙ্গে ৪৪ শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু কাঁদিয়েছিল সবাইকে। এই শোককে শক্তিতে পরিণত করতে এবং এমন ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না হয় সেটি স্মরণ করিয়ে দিতে জেলা পরিষদের মাধ্যমে ৩৫ লাখ টাকা ব্যয়ে এ স্মৃতিস্তম্ভ নির্মিত হয়েছে।

আবুতোরাব উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাফর সাদেক বলেন, ২০১১ সালে মিরসরাইয়ের মায়ানী, আবুতোরাব, মঘাদিয়া এলাকায় যা হয়ে গেছে তা কখনও পূরণ হওয়ার নয়। ঘটনাস্থলে ‘অন্তিম’ নির্মাণ হওয়ায় ওই ছাত্রদের স্মৃতির প্রতি অন্তত শ্রদ্ধা জানানো যাবে।

২০১১ সালের ১১ জুলাই মিরসরাই সদর থেকে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল খেলা শেষে বাড়ি ফেরার পথে বড়তাকিয়া-আবুতোরাব সড়কের সৈদালী এলাকায় ট্রাক উল্টে ডোবায় পড়ে এলাকার ৪৪ শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আবুতোরাব উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ও দূর্ঘটনাস্থলে দুটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন তৎকালীন শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া এবং বর্তমান সরকারের গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী মোশাররফ হোসেন। দুর্ঘটনার বছরেই আবুতোরাব উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে নির্মাণ করা হয় স্মৃতিস্তম্ভ ‘আবেগ’। গত বছরের ১০ জুলাই দুর্ঘটনাস্থলে স্মৃতিস্তম্ভ ‘অন্তিম’-এর ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেন মন্ত্রী মোশাররফ হোসেন।

যাদের স্মরণে অন্তিম :
যাদের স্মরণে ‘অন্তিম’ তৈরি হচ্ছে, তারা হচ্ছে তাকিউল্লা মাহমুদ, আনন্দ দাশ, নুর মোহাম্মদ রাহাত, জাহেদুল ইসলাম, তোফাজ্জল ইসলাম, লিটন চন্দ্র দাশ, আরিফুল ইসলাম, উজ্জল নাথ, তারেক হোসেন, শামসুদ্দিন, মেজবাহউদ্দিন, এমরান হোসেন ইমন, কাজল চন্দ্র নাথ, সূর্য নাথ, ধ্রুব নাথ, সাজু দাশ, আবু সুফিয়ান সুজন, রুপম নাথ, আল মোবারক জুয়েল, শামসুদ্দীন, ইফতেখার উদ্দিন, আমিন শরীফ, শরীফ উদ্দিন, শাখাওয়াত হোসেন, রাকিবুল ইসলাম, কামরুল ইসলাম, শাখাওয়াত হোসেন, তারেক হোসেন, নয়ন শীল, জুয়েল বড়ূয়া, রায়হান উদ্দিন, রিয়াজ উদ্দিন, টিটু জলদাশ, রাজীব হোসেন, আশরাফ উদ্দিন, জিল্লুর রহমান সাজ্জাদ, জাহেদুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম, সাইদুল ইসলাম, আশরাফ উদ্দিন পনির, রায়হান উদ্দিন শুভ, মঞ্জুর মোর্শেদ, আনোয়ার হোসেন, শাখাওয়াত হোসেন নয়ন।

মতামত...