,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে পুলিশের গুলিতে নিহত ১, স্কুলছাত্রসহ গুলিবিদ্ধ ২ প্রতিবাদে ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড থানা পুলিশের একটি দল সাদা পোশাকে আসামি ধরতে এসে এলাকাবাসীর রোষানলে পড়ে। এসময় পুলিশের এলোপাতাড়ি গুলিতে এক স্কুলছাত্রসহ তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা গেছেন গুলিবিদ্ধ সাইফুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি। ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ জনতা ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়ক রাত ১০টা থেকে অবরোধ করে রাখে। ভাঙচুর করেছে বিশটির অধিক গাড়ি।

বুধবার রাত ১০টায় চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার ভাটিয়ারী দক্ষিণ বাজার এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।

স্থানীয় বাসিন্দা বদিউল আলম জানান, বুধবার রাত দশটায় সীতাকুণ্ড থানা পুলিশের একটি টিম সাদা পোশাকে ভাটিয়ারীর পশ্চিমে তেলিপাড়া এলাকায় আসামি ধরতে আসে। সাদা পোশাকে দেখে স্থানীয়দের মধ্যে সন্দেহ হলে তারা পুলিশদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এ সময় স্থানীয় লোকজন জড়ো হলে সাদা পোশাকের পুলিশ তাদের উপর এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। এ সময় পুলিশের গুলিতে গুলিবিদ্ধ হয় ওই এলাকার ছাদেকের ছেলে স্কুলছাত্র ইমরান আলী জয় (১৮), শামশুল আলমের ছেলে সাইফুল ইসলাম (২২) ও সিএনজি টেক্সি ড্রাইভার কবির আহমদ ভোলা (৫৫)।

নিরীহ এলাকাবাসীর উপর সাদা পোশাকধারী পুলিশের বিনা কারণে গুলি করার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়কের ভাটিয়ারী এলাকায় এসে রাত ১০ দিকে ব্যারিকেড দেয়। এসময় তারা বিশটির অধিক গাড়ি ভাঙচুর করে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত রাত ১১টায় মহাসড়কে ব্যারিকেড চলছিলো।

ভাটিয়ারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নাজিম উদ্দিন বলেন, পুলিশের গুলিতে তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। বিক্ষুব্ধ জনতা ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়কে ব্যারিকেড দিয়েছে।

বারআউলিয়া হাইওয়ে থানার ওসি আহসান হাবিব বলেন, গোলাগুলির ঘটনার পর স্থানীয় এলাকাবাসী দেয়া ব্যারিকেডে ১১টার দিকে তুলে নেয়া হয়েছে। এঘটনার পর সীতাকুণ্ড থানার কোন কর্মকর্তা মোবাইল ফোন না ধরায় তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম গুলিবিদ্ধ সাইফুল ইসলাম মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। গুলিবিদ্ধ অপর দুইজনকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

মতামত...