,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামের ৭ ছাত্রলীগের নেতা কেন্দ্রীয় কমিটিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ১৭মে, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন চট্টগ্রামের ৭ ছাত্রলীগের নেতা ।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ও সম্পাদক ও সিটি মেয়র আজম নাছির উদ্দিনের অনুসারী থেকে কেন্দ্রীয় কমিটিতে যথাক্রমে ৩ জন ও ৪ জন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

চট্টগ্রাম থেকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের পদ পাওয়া সৌভাগ্যবান সেই সাত ছাত্রনেতা হলেন নগর ছাত্রলীগের সহ সভাপতি রুমেল বড়ুয়া রাহুল, ইয়াছিন আরাফাত কচি, সহ সম্পাদক শাহেদ মিজান, সহ সভাপতি মহিউদ্দিন মাহি, চট্টগ্রাম আইন কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক জিএস ওয়ায়েছ কাদের, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক ভিপি ডাঃ উৎপল চাকমা ও আবদুল্লাহ আল জুবায়ের হিমু।

চট্টগ্রামনগর ছাত্রলীগের সহ সভাপতি রুমেল বড়ুয়া রাহুল, ইয়াছিন আরাফাত কচি ও আবদুল্লাহ আল জুবায়ের হিমু নগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

অপরদিকে নগর ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক শাহেদ মিজান, সহ সভাপতি মহিউদ্দিন মাহি, চট্টগ্রাম আইন কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক জিএস ওয়ায়েছ কাদের, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক ভিপি ডাঃ উৎপল চাকমা নগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আজম নাছির উদ্দিনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন সারাদেশে ছাত্রলীগের নিরক্ষরমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে ‘সাক্ষরতার আলো’ কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য কর্মসূচি দিয়েছেন।

চট্টগ্রামেও অনেকজনকে ‘সাক্ষরতার আলো’ কর্মসূচির সদস্য পদ দেয়া হয়েছে। তবে তারা কেউ বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সদস্য নয় বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন। কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ গত ১১ মে এক বিজ্ঞপ্তিতে বলেছেন, ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের পক্ষ থেকে যাদের চিঠি দেয়া হবে তারাই শুধুমাত্র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হিসেবে গণ্য হবে বলে ।

জানাগেছে, ছাত্রলীগ ঘোষিত নিরক্ষরতামুক্ত বাংলাদেশ কর্মসূচির জন্য সারাদেশ থেকে বাছাই করে কর্মসূচি ভিত্তিক কিছু সদস্যপদ দেয়া হচ্ছে। একই রকম চট্টগ্রাম মহানগর ও উত্তর জেলা থেকেও ১১ জনের মতো ‘সাক্ষরতার আলো’ কর্মসূচির সদস্য দেয়া হয়েছে। তাদেরকে কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে কে কোন জেলায় কাজ করবেন তা নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। তারা কোনভাবেই গঠনতান্ত্রিক কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নয় বলে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে ‘সাক্ষরতার আলো’ কর্মসূচির সদস্যরা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য বলে তাদের আপনজন এবং বন্ধু-বান্ধবরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিচিতি তুলে ধরছেন। এতে করে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হচ্ছে।

-বিজ্ঞপ্তি।

মতামত...