,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামে আইনজীবী বাপ্পী হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে দিনভর কর্মবিরতি পালন

দিলরুবা খানম, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম::চট্টগ্রামের আইনজীবীরা তরুণ আইনজীবী ওমর ফারুক বাপ্পী হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে সোমবার দিনভর কর্মবিরতি পালন করেছেন । জেলা আইনজীবী সমিতি আহুত কর্মবিরতির ফলে আদালতে কার্যক্রম চলেনি । বিচারকগণও এজলাসে ওঠেননি। তবে, নতুন গ্রেপ্তার হওয়া অভিযুক্তদের আদালতে হাজির করা হলে সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক নিয়ম অনুযায়ী খাস কামড়ায় আদেশ প্রচার করেন। এর আগে গত রবিবারও বাপ্পী হত্যার প্রতিবাদে চট্টগ্রামের সর্বস্তরের আইনজীবী দুপুর ১২ টা থেকে দেড়ঘণ্টার কর্মবিরতি পালন করেন।

জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোহাম্মদ আবু হানিফ বলেন, বাপ্পী হত্যার প্রতিবাদে সোমবার সমিতির উদ্যোগে আদালত এলাকায় মৌন মিছিল করা হয়েছে। এতে সর্বস্তরের আইনজীবী যোগ দিয়েছেন। বাপ্পী হত্যার প্রতিবাদে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত সমিতির সদস্যরা কালো ব্যাজ ধারণ করবেন বলেও তিনি জানান। সহকারী পুলিশ কমিশনার (প্রসিকিউশন) মো. শাহব উদ্দিন পূর্বকোণকে বলেন, আইনজীবীদের কর্মবিরতির কারণে সোমবার আদালতের কার্যক্রম চলেনি।

নগরীর কেবি আমান আলী রোড বড় মিয়া মসজিদ এলাকার ইউ ভবনের নীচতলার একটি কক্ষ থেকে পুলিশ বাপ্পীর মৃতদেহ উদ্ধার করে। এসময় তার হাত পা বাঁধা ছিল। মুখে ট্যাপ প্যাঁচানো ছিল। এ ঘটনায় বাপ্পীর পিতা বাদি হয়ে রবিবার চকবাজার থানায় অজ্ঞাাতনামা অভিযুক্তের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ নৃশংস হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে চট্টগ্রামের সর্বস্তরের আইনজীবীর বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। রবিবার সারাদিন কোর্টহিল এলাকা প্রতিবাদ মুখর ছিল। এ হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে আইনজীবী সমিতির টানা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

সোমবার প্রতিবাদ সমাবেশেও বাপ্পী হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মুখরিত ছিল আদালত অঙ্গন। এ মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালে দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে দাবি উঠে। সমিতির এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বাপ্পী হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবি সমিতির উদ্যোগে নতুন আদালত ভবন চত্বরে সমিতির সভাপতি রতন কুমার রায়ের সভাপতিত্বে ও সমিতির সহ–সাধারণ সম্পাদক মো. হাসান আলী চৌধুরীর সঞ্চালনায় পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে পেশাগত কর্মবিরতি ও মৌন মিছিল বিপুল সংখ্যক বিজ্ঞ আইনজীবীর উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হয়। মৌন মিছিলশেষে এক প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, আইনজীবী ওমর ফারুক বাপ্পী হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে বিচার কার্য সম্পন্ন করতে হবে। এ জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশ কমিশনার ও জেলা প্রশাসকের প্রতি জোর দাবি জানান তারা। এছাড়া এ বিষয়ে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলে স্মারকলিপি প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। বক্তারা সারা দেশের আইনজীবীদের প্রতি বাপ্পী হত্যাকারীদের পক্ষে মামলা পরিচালনা না করার অনুরোধ জানান। নারকীয় এ–হত্যাকা–ের প্রতিবাদে বাংলাদেশের প্রতিটি আইনজীবী সমিতিতে কর্মসূচি পালনের নির্দেশনা প্রদান করতে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের প্রতি অনুরোধ করেন । বক্তারা আরো বলেন, সমিতির সদস্যগণ আগামী তিন কর্মদিবসে কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাজ ধারণ করার অনুরোধ জানান।

প্রতিবাদ সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিল সদস্য মো. ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বাবুল, সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আবু হানিফ, এডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, সাবেক সভাপতি একেএম সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, মো. দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, চন্দন দাশ, মো. মুজিবুল হক, মো. কফিল উদ্দিন চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, অশোক কুমার দাশ, মো. আবদুর রশিদ, মো. এনামুল হক, এডভোকেট এএসএম বদরুল আনোয়ার, আবদুস সাত্তার, আবদুস সাত্তার সরোয়ার, নুরুল ইসলাম, জহুরুল আলম, জহির উদ্দিন মাহমুদ, সমিতির পাঠাগার সম্পাদক মো. আব্দুল কাইয়ুম ভুইয়া, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সম্পাদক জুবাইদা ছরোয়ার চৌধুরী নিপা, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মো. ফয়েজ উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

মতামত...