,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামে উৎসব মুখর: ৩৫৪ কাউন্সিলরসহ ২ হাজার প্রতিনিধি ঢাকায় যাচ্ছেন

বিশেষ সংবাদদাতা, বিডিনিউজ রিভিউজঃ চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এযাবতকালের সবচেয়ে বেশি উৎসব মধ্যে চট্টগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জেলার অনেক শীর্ষনেতা ঢাকায় চলে গেছেন। ৩৫৪ কাউন্সিলরসহ ২ হাজার প্রতিনিধি ঢাকায় যাচ্ছেন আজ।

আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে চট্টগ্রামের গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোকে বর্ণাঢ্য আলোকসজ্জায় সাজিয়ে তোলা হয়েছে। সাজানো হয়েছে দলীয় কার্যালয়ও। নেতাকর্মীদের উৎসাহের কারণে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ থেকে কেন্দ্রের নির্ধারিত সংখ্যার চেয়ে কয়েক গুন বেশী ১৬৪৬ জন প্রতিনিধিসহ প্রায় ২ হাজার কর্মী সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর ও প্রতিনিধিরা শুক্রবার দিনে-রাতে ট্রেনে এবং বাসে যাত্রা করবেন। একই সাথে উত্তর ও দক্ষিণ জেলার নেতারাও আজ যাত্রা করবেন। বিগত সম্মেলনগুলোর চেয়ে এবারের সম্মেলনে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ কাউন্সিলর ও প্রতিনিধি কার্ড বেশি পেয়েছে। এবার কাউন্সিলর কার্ড পেয়েছে ১৩২টি এবং প্রতিনিধি কার্ডও ১৩২টি।

 উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ পেয়েছে ১১১টি করে কাউন্সিলর কার্ড এবং ১১১টি করে প্রতিনিধি কার্ড। জাতীয় কাউন্সিলকে ঘিরে রাজধানী ঢাকাকে সাজানো হয়েছে বর্ণাঢ্য সাজে। এর প্রভাব পড়েছে বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামেও।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বিডিনিউজ রিভিউজকে  বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের এবারের ২০তম জাতীয় সম্মেলন নেতাকর্মীদের মাঝে নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। আমরা চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে আলোকসজ্জা করেছি। এবারের সম্মেলনে শুধু আওয়ামী লীগ কিংবা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের নেতাকর্মীদের মধ্যে নয়-মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এর কারণ হচ্ছে- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি জনগণের আস্থা। সিটি মেয়র বলেন- সম্মেলনে বাড়তি প্রতিনিধিদের আমন্ত্রণপত্র দিয়ে সম্মেলনস্থলে প্রবেশের সুযোগ করে দেয়া হবে।

সম্মেলন উপলক্ষে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের প্রশাসক এমএ সালাম আগে থেকেই ঢাকায় রয়েছেন। মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আওয়ামী লীগের এবারের জাতীয় কাউন্সিলকে ঘিরে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উদ্দীপনা বিরাজ করছে। আমরা আমাদের অফিস আলোকসজ্জা করেছি। আমাদের অনেক নেতাকর্মী ঢাকায় চলে এসেছেন। বাকিরা শুক্রবার বাসে ও ট্রেনে আসবেন। নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক-উৎসাহ উদ্দীপনার কারণে প্রতিনিধি এখন প্রায় ৫০০ জন হয়ে গেছে।

দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানও সম্মেলনকে ঘিরে ঢাকায় রয়েছেন। মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, সম্মেলন উপলক্ষে প্রতিটি উপজেলা থেকে বাসে করে কাউন্সিলর ও প্রতিনিধিরা ঢাকায় যাবেন। আমরা ট্রেনেরও ৪টি বগি ঠিক করেছি। তবে প্রতিনিধি হবে প্রায় ১০০০। তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে- আওয়ামী লীগ প্রাচীন দল হিসেবে জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে আগ্রহটা বেশি।

 

মতামত...