,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামে চেয়ারম্যান পদে ২ ও সদস্যপদে ৭৪ মনোনয়নপত্র জমা

jনিউজ ডেস্ক,বিডিনিউজ রিভিউজ.কম: চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিনে দুইজন চেয়ারম্যান প্রার্থী এবং ৭৪ জন সাধারণ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডে সদস্য প্রার্থী নিজ নিজ কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। প্রথমবারের মতো জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও সদস্য পদে প্রার্থীদের মধ্যে ছিল ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা।

চট্টগ্রামে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হলেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদ্যবিদায়ী প্রশাসক এম এ সালাম এবং বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের (বিএনএফ) চট্টগ্রাম জেলার নেতা নারায়ণ রক্ষিত।

 সাধারণ ও সংরক্ষিত পাঁচটি ওয়ার্ডে সদস্য পদে মাত্র একজন করে প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তাদের কোন প্রতিদ্বন্দ্বী নেই। ওয়ার্ডগুলো হলো- ১, ৭, ৮, ১২ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড এবং সংরক্ষিত ৩ নম্বর ওয়ার্ড। প্রার্থীরা হলেন- ১ নম্বর (মীরসরাই-বারৈয়ারহাট) ওয়ার্ডের শেখ আহমদ, ৭ নম্বর (রাউজান) ওয়ার্ডের কাজী আব্দুল ওহাব, ৮ নম্বর (রাঙ্গুনিয়া) ওয়ার্ডের কামরুল ইসলাম চৌধুরী, ১২ নম্বর (আনোয়ারা-বাঁশখালী আংশিক) ওয়ার্ডের এস এম আলমগীর এবং সংরক্ষিত ৩ নম্বর ওয়ার্ডে দিলুয়ারা ইউসুফ।

জেলা নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তারা জানান, প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় নিয়মানুসারে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের পর তাদের বিজয়ী ঘোষণা করা হবে।

বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১২টায় জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মোঃ সামসুল আরেফিনের কার্যালয়ে গিয়ে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দেন এম এ সালাম। অপর দিকে সকাল ১০টায় চেয়ারম্যান পদে অপর প্রার্থী বিএনএফ নেতা নারায়ণ রক্ষিত জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা খোরশেদ আলমের কার্যালয়ে গিয়ে তার মনোনয়নপত্র জমা দেন।

সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা খোরশেদ আলমের কার্যালয়ে জেলা পরিষদ নির্বাচনের ১৫ সাধারণ ওয়ার্ডে ৫৮ জন প্রার্থী এবং ৫টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ১৬ জন মহিলা প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র জমা দেন।

সাধারণ ১ নম্বর ওয়ার্ডে শুধুমাত্র ১ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ২ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন, ৩ নম্বর ওয়ার্ড ৭ জন, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ৭ জন, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে ৫জন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে ৬ জন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে ১ জন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ১ জন, ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন, ১০ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন, ১১ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন, ১২ নম্বর ওয়ার্ডে ১ জন, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ৬ জন, ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ জন, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে ২ জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

১ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ২ জন মহিলা সদস্য প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। ২ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৭ জন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে ১ জন, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ৩ জন ও ৫ নম্বর ওয়ার্ডে ৩ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। আগামী ৩ ও ৪ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই এবং প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ১১ ডিসেম্বর। নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে ১২ ডিসেম্বর। ২৮ ডিসেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এম এ সালামের মনোনয়নপত্র জমা : চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১২টায় চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচনের রির্টানিং অফিসার ও চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিনের কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এসময় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন, সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এড. ফখরুদ্দিন চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম আজাদ, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ গিয়াস উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইউনুস গণি চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক ও পৌর মেয়র দেবাশীষ পালিত, কোষাধ্যক্ষ ও রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহেসানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল, কৃষি সম্পাদক ও রাঙ্গুনিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আলী শাহ্‌, উপজেলা চেয়ারম্যান এসোসিয়েশনের চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি আব্দুল জব্বার চৌধুরী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মোঃ সাহাবুদ্দীন, নগর ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এড. শেখ ইফতেখার সাইমুল, বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার, আনোয়ারুল হক চৌধুরী বাবুল, জাফর আহমেদ, চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম তালুকদার, মোঃ নুরুল হাকিম, মোহাম্মদ ইদ্রিস প্রমুখ। এসময় আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন। এর আগে তিনি হযরত শাহ সুফী সৈয়দ আমানত খান (রা:) এর মাজার জেয়ারত ও বিশেষ মোনাজাত করেন। তিনি বলেন, গত ৫ বছর দায়িত্ব পালনকালে জেলা পরিষদের সেবা জনগণের দোর গোড়ায় পৌছে দিতে পেরেছি। আগামী নির্বাচনেও বিজয়ী হয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রী লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে কাজ করবেন বলে জানান।

সদস্য পদে যারা মনোনয়নপত্র জমা দিলেন : ১১নং ওয়ার্ডে (চন্দনাইশ উপজেলা ও পটিয়া উপজেলা আংশিক) সাধারণ সদস্য পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করলেন চন্দনাইশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু আহমেদ জুনু। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চন্দনাইশ উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি মাস্টার আহসান ফারুক, সাংগঠনিক সম্পাদক বাবর আলী ইনু ও সাখাওয়াত হোসেন শিবলী, প্রচার সম্পাদক হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা শেখ টিপু চৌধুরী, শাহাদাত হোসেন চৌধুরী জসিম প্রমুখ।

৪ নং ওয়ার্ড (হাটহাজারী-মহানগর অংশে) গতকাল বিকেলে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মহানগর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সাবেক ছাত্রনেতা কাজী মোহাম্মদ আলমগীর। জেলা নির্বাচন কমিশনার খোরশেদ আলমের কাছে মনোনয়ন পত্র দাখিলের সময় তাঁর সাথে উপস্থিত ছিলেন মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়ক কেবিএম শাহজাহান, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ পরিষদের সাবেক সহ সম্পাদক এম আর আজিম, নগর যুবলীগ নেতা নুরুল আনোয়ার, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যলয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাছির হায়দার বাবুল, চিত্র নায়ক পংকজ বৈদ্য সুজন, সুজিত বড়ুয়া শিমুল, নগর ছাত্রলীগ নেতা সৈয়দ মোহাম্মদ বয়ান, জুনায়েদ আহম্মেদ রাসেল, সৈয়দ গোফরান, মো. আইয়ুব প্রমুখ।

২নং ওয়ার্ডে (সীতাকুণ্ড-আংশিক মীরসরাই) সদস্য পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মহিউদ্দিন বাবলু। গতকাল দুপুরে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য মোহাম্মদ ইদ্রিস, সীতাকুণ্ড উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ ইসহাক, ১নং সৈয়দপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম নিজামী, ২নং বারৈয়াঢালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রেহান উদ্দিন রেহান, ৬নং বাঁশবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলী জাহাঙ্গীর, ৯নং ভাটিয়ারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নাজিম উদ্দিন, ৭নং কুমিরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোরশেদ আলম চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হাশেম ভুইয়া, মুক্তিযোদ্ধা সিরাজদৌল্লাহ বিএসসি।

৪নং ওয়ার্ডের (চট্টগ্রাম মহানগর ও হাটহাজারী আংশিক) সদস্য পদে আরেক প্রার্থী জাফর আহমেদ দুপুরে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইউনুছ গণি চৌধুরী, লোকমান হোসেন জুনু, আ.স.ম. রফিক, উত্তর মাদার্শা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনজুর হোসেন মাসুদ, শিকারপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু বক্কর ছিদ্দিকী।একই ওয়ার্ডের সদস্য পদে দুপুরে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন জসিম উদ্দিন শাহ্‌।
এসময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইউনুছ গণি চৌধুরী প্রমুখ।

মতামত...