,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির ফিরিস্তি শুনলেন বিআরটিএ চেয়ারম্যান

bনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: যানবাহনের ডিজিটাল নম্বর প্লেটের মান অত্যন্ত খারাপ, ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট প্রদানেও রয়েছে ধীরগতি। লাইসেন্স প্রদানের ক্ষেত্রেও রয়েছে বিড়ম্বনা। এসব রোধ করে বিআরটিএকে আরো গণমুখী করার জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে।

বুধবার ১৬ নভেম্বর বিআরটিএতে অনুষ্ঠিত গণশুনানিতে এসব বিষয় তুলে ধরেন ভুক্তভোগীরা। গণশুনানির জবাবে বিআরটিএ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন, বিষয়গুলোর সাথে বেসরকারি কোম্পানি জড়িত। আমি বিষয়টি দেখবো। বিআরটিএ’র কোন কর্মকর্তা বা কর্মচারি যদি কোন ধরনের হয়রানি, ঘুষ দাবি করেন তাহলে সাথে সাথে তাকে ফোন করার আহ্বান জানান তিনি। তিনি বলেন, বিআরটিএতে কোন ধরনের অনিয়ম এবং দুর্নীতি সহ্য করা হবে না। বিআরটিএ’র সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর বলেও মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম মন্তব্য করেন।

বিআরটিএ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বুধবার সকালে চট্টগ্রাম বিআরটিএ কার্যালয় পরিদর্শনে আসেন। এসময় গণশুনানির আয়োজন করা হয়। বিআরটিএতে বিভিন্ন কাজে যাওয়া দেড় শতাধিক মানুষ বিভিন্ন অভিযোগ তুলে ধরেন। এসময় ডিজিটাল নম্বর প্লেটের মান অত্যন্ত খারাপ উল্লেখ করে বলা হয়- লাগানোর কিছুদিনের মধ্যেই এগুলোর রঙ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। কেবল বিবর্ণই নয়, নষ্টও হচ্ছে। একই সাথে ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট (ডিআরসি) প্রদানে দীর্ঘ সময় লাগছে। মাসের পর মাস অপেক্ষা করতে হচ্ছে সার্টিফিকেটের জন্য। রাস্তাঘাটে পুলিশের হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে ডিআরসি প্রদানের ব্যবস্থা করার জন্যও গণশুনানীতে আহ্বান জানানো হয়।

গণশুনানিতে বলা হয়, বিদেশগামী বহু মানুষ ড্রাইভিং লাইসেন্সের অভাবে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। বিদেশ থেকে ভিসা এসেছে। কিন্তু লাইসেন্স পেতে দেরি হওয়ায় যেতে পারছেন না। আবার এত লম্বা সময় দেয়া হয় যে- পরীক্ষাও দিতে পারছেন না। এটি একটি বড় সমস্যা। ভুক্তভোগীরা দ্রুততম সময়ের মধ্যে পরীক্ষা নিয়ে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব লাইসেন্স প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান। বিশেষ করে বিদেশগামী ড্রাইভাররা যাতে স্বল্পতম সময়ে পরীক্ষা দিয়ে লাইসেন্স পেতে পারেন সেই ব্যবস্থা করার জন্য চেয়ারম্যানের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। অপরদিকে বিদেশি লাইসেন্স যাদের হাতে রয়েছে সেসব ব্যক্তিকে বিশেষ ব্যবস্থায় দেশীয় লাইসেন্স প্রদানের ব্যবস্থা করারও অনুরোধ জানানো হয়। বিআরটিএ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম ধৈর্ষ্য ধরে বিভিন্ন জনের বক্তব্য শুনেন এবং প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দেন।

গণশুনানিকালে বিআরটিএ চট্টগ্রামের উপ পরিচালক মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ নুর হোসেন, সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ তৌহিদুল হোসেন, সহকারী পরিচালক কে এম মাহবুব কবীরসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মতামত...