,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামে পিডিবির ১৮ শ কর্মকর্তা-কর্মচারীর গণছুটির আবেদন

abnr ad 1নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ সারাদেশের ন্যায় চট্টগ্রামেও আন্দোলন চলছে, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) বিতরণ রাজশাহী ও রংপুর অঞ্চলকে নর্থ ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডে’র কাছে হস্তান্তরের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ।

আন্দোলনের অংশ হিসেবে ৯ থেকে ১১ আগস্ট পর্যন্ত পিডিবির সব স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শ্রমিকেরা গণছুটির আবেদন করছেন। অন্যান্য অঞ্চলের মতো বিতরণ দক্ষিণাঞ্চল বলে পরিচিত পিডিবি, চট্টগ্রামেও একই প্রক্রিয়ায় গণছুটির আবেদন করেছেন ১৮০০ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শ্রমিক।

বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড শ্রমিক কর্মচারী, কর্মকর্তা ঐক্য পরিষদ এই কর্মসূচি ঘোষণা করে। এই পরিষদের চট্টগ্রাম অঞ্চলের শাখা পরিষদ ‘চট্টগ্রাম বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড শ্রমিক কর্মচারী, কর্মকর্তা ঐক্য পরিষদে’র আহ্বানে এই গণছুটির আবেদন করেন।

 চট্টগ্রাম পিডিবি, সূত্র জানায়, সোমবার ৮ আগস্ট স্ব স্ব দপ্তর প্রধানের কাছে গণছুটির আবেদন করেছেন এই অঞ্চলের অধিভুক্ত ১৮০০ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শ্রমিক।

সোমবার দুপুরে পিডিবি চট্টগ্রামের কয়েকজন কর্মকর্তার কক্ষে বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে দেখা যায়, একের পর এক তিনদিনের গণছুটির আবেদন নিয়ে হাজির হচ্ছেন তাদের অধঃস্তন কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শ্রমিকেরা।

চট্টগ্রাম বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড শ্রমিক কর্মচারী, কর্মকর্তা ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব পিডিবি চট্টমেট্রো (পশ্চিম) এর তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন বলেন, বিতরণ রাজশাহী ও রংপুর অঞ্চলকে নর্থ ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডে’র কাছে হস্তান্তরের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এবং সেই চুক্তি বাতিলের দাবিতে আমরা আন্দোলনে নেমেছি। সেই আন্দোলনের অংশ হিসেবে আমরা তিনদিনের গণছুটির আবেদন করেছি।’

গণছুটির আবেদন করলেও বাস্তবে ছুটি কাটাতে চান না কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শ্রমিকেরা। তারা এটিকে প্রতিবাদের অংশ হিসেবে ‘শো’ ছুটির আবেদন বলছেন। তারা ঠিকই আগের মতো এই তিনদিন দাপ্তরিক কাজ সম্পাদন করবেন।

 চট্টগ্রাম বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড শ্রমিক কর্মচারী, কর্মকর্তা ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব প্রবীর কুমার সেন বলেন, ‘আমরা প্রতিবাদের অংশ হিসেবে এই গণছুটির আবেদন করেছি। তবে এতে গ্রাহকদের ভোগান্তি হবে না। জরুরি যেসব দপ্তর রয়েছে সেসব দপ্তর আগের মতোই কর্মচঞ্চল থাকবে। শুধুমাত্র সাধারণ কাজগুলো আমরা করবো না এই তিনদিন। কারণ এই চুক্তি আমাদের স্বার্থবিরোধী।’

তিনদিনের গণছুটির আবেদনের আগে ৭ ও ৮ আগস্ট একই প্রতিবাদে কালো ব্যাচ ধারণ, গেইট সভা ও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন  কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শ্রমিকেরা।২১ টি দপ্তরেই একযোগে এসব কর্মসূচি পালন করা হয়।

পিডিবি চট্টগ্রামের অধিভুক্ত ২১ টি দপ্তরে যৌথভাবে একই কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।পাশাপাশি সব দপ্তরেই একই বক্তব্য লেখা ব্যানারও ব্যবহার করা হচ্ছে কর্মসূচি পালনের ক্ষেত্রে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পিডিবি চট্টগ্রামের এক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, ‘সবাই স্ব স্ব দপ্তরের প্রধানের কাছে আবেদন করেছি তা ঠিক। কিন্তু এই আবেদন কাগজে কলমে মঞ্জুর হবে না। আমরা সবাই আগের মতোই গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো করে যাবো ঠিকই, তবে প্রতিবাদের অংশ হিসেবে সাধারণ কাজগুলো এই তিনদিন বন্ধ রাখবো।’

 

মতামত...