,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামে প্রধান মন্ত্রীর নামে প্রতারনার দায়ে ৩ আটক

h t imamনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ  চট্টগ্রাম, প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রশাসন বিষয়ক উপদেষ্ঠা এইচ টি ইমামের নাম ভাঙিয়ে আওয়ামী লীগের ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীদের কাছ থেকে জরিপের নামে প্রতারণার দায়ে কথিত তিন সাংবাদিককে আটক করেছে নগর গোয়েন্দা পুলিশ।

সোমবার সন্ধ্যায় নগরীর ওয়েল পার্ক হোটেল থেকে ডিজিএফএইয়ের তথ্যের ভিত্তিতে হাতেনাতে তাদের আটক করা হয়।

আটকরা হলেন, একটি বেসরকারি টিভির চট্টগ্রামের ডেপুটি ব্যুরো প্রধান হান্নান হায়দার, ‘মাসিক আলোচিত বাংলাদেশ’ পত্রিকার সম্পাদক মাসুদ রানা ও রিপোর্টার সাদ্দাম হোসেন।

নগর পুুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) দেবদাস ভট্টাচার্য নিউজ রিভিউজ ডটকমকে বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নাম ভাঙিয়ে আসন্ন ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচনে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীদের নামে পজেটিভ জরিপ করতে আসেন বলে জানান আটক তিন সাংবাদিক। তারই অংশ হিসেবে ঢাকা থেকে আসা নোয়াখালীর চাঁটখীলের দুই বাসিন্দাদের সাথে একই এলাকার বাসিন্দা চট্টগ্রামে কর্মরত আরেক টিভি সাংবাদিককে নিয়ে হোটেল ওয়েল পার্কে যান। সেখানে সাতকানিয়ার দুই চেয়ারম্যান পদ প্রত্যাশীর ইন্টারভিউও নিয়ে নেন। এসময় তাদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে পজেটিভ প্রতিবেদন এইচ টি ইমাম স্যারের কাছে পেশ করার কথাও জানানো হয়।

তবে প্রতারণার বিষয়টি টের পেয়ে ডিজিএফআইয়ের তথ্যের ভিত্তিতে গোয়েন্দা পুলিশ তাদের আটক করে।’

তিনি আরো বলেন, আটকের পর সিএমপি দপ্তরে এনে  জিজ্ঞাসাবাদে হান্নান হায়দার নামে একজন একটি বেসরকারি টেলিভিশনের চট্টগ্রাম ডেপুটি ব্যুরো চীফ হিসেবে পরিচয় দিয়ে প্রতারণার দায় অস্বীকার করে শুধুমাত্র এলাকার বন্ধু হিসেবে ওই দুই জনের সাথে ওয়েল পার্কে গিয়েছিলেন বলে দাবি করেন। তবে অন্য দুজন ঢাকা থেকে ‘মাসিক আলোচিত বাংলাদেশ’ পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থীদের জরিপের নামে চট্টগ্রামে এসেছিলেন বলে স্বীকার করেন। এসময় তারা নিজেদের দোষ স্বীকার করে মা-বাবার অসুখের কথা বলে নিজেদের মুক্তি দাবি করেন। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অভিযানে নেতৃত্বদানকারী গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক শাহ মোহাম্মদ আব্দুর রউফ বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমকে বলেন,  আটক হান্নান হায়দার টিভি ডেপুটি ব্যুরো প্রধান পরিচয় দিলেও মাসুদ রানা মাসিক আলোচিত বাংলাদেশ পত্রিকার সম্পাদক পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। রানা ও সাদ্দাম মূলত প্রতারকই। তারা  এইচ টি ইমাম স্যারের নাম ভাঙ্গিয়ে এক পর্যায়ে ডিবিকে তার সাথেও মোবাইলে কথা বলিয়ে দেয়ার চেস্টা করে ব্যর্থ হয়।  তারা জানায়, এইচ টি ইমাম স্যারের পিএ পরিচয়দাকারী সালাম সাহেব নামে একজনের নির্দেশে একাজে চট্টগ্রামে আসেন। এসময় তারা পত্রিকাটিকে দৈনিক করার জন্য আবেদন করেছেনও বলেও দাবি করেন।

ডিবি জানায়, মূলত চেয়ারম্যান নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তারা এই প্রতারণা করছেন। এমনকি মাননীয় স্পিকার ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তাদের নাম ভাঙিয়ে আমাদের বিভ্রান্তি করতে চেয়েছে।

 

 

বি এন আর/০০১৬০০৩০০১৫/০০০২২৯/পি

মতামত...