,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কোটি আত্মসাতের মামলা

adalatচট্টগ্রাম অফিস,নিজস্ব প্রতিবেদক,২৪, জানুয়ারি (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম):: প্রতারণার মাধ্যমে ১ কোটি ১৫ লক্ষ ৩৬ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ভারতীয় আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানসহ দুটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। রোববার বিকেলে চট্টগ্রাম মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট নুরে আলম ভুইয়ার আদালত মামলাটি দায়ের করেন ভারটেক্স এ্যাপারেল লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ জহির হোসেন।

বিবাদিরা হলেন- ভারতীয় আমদানীকারক প্রতিষ্ঠান লিলিপুট কিডস ওয়্যার লিমিটেড চেয়ারম্যান সঞ্জীব নারুলা ও ফ্রেইট ফরোয়াডার মেসার্স ইআরটি শিপিং এন্ড ওয়ারহাউজিং (প্রাঃ) লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রমোদ মাহাতা।

বাদী পক্ষের আইনজীবি মানবাধিকার নেতা এডভোকেট জিয়া হাবিব অহসান জানান, আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে বাদীর জবানবন্দী গ্রহণ তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইভেস্টিগেশন (পিআইবি) কে নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার অভিযোগে ভারতীয় প্রতিষ্ঠান লিলিপুট কিডস ওয়্যার লিমিটেডের চাহিদা মোতাবেক বাদীর প্রতিষ্ঠান ভারটেক্স এ্যাপারেল লিমিটেড ৩৭,২০০ পিস তৈরি পোশাক রপ্তানি করেন । যার মুল্য বাংলাদেশী টাকায় এক কোটি ১৫ লক্ষ ৩৬ হাজার ৮০০ টাকা। ফ্রেইট ফরোয়াডার প্রতিষ্ঠান নিয়ম অনুয়ায়ী ব্যাংকের ছাড়পত্র গ্রহণ ব্যতিরেকে রপ্তানিকৃত পন্যের মুল্য পরস্পর যোগসাজশে আত্মসাতের কুমানসে আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের বরাবরে হস্তান্তর করলে আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান বাদী পাওনা পরিশোধে গড়িমসি করিতে থাকে।

পাওনা আদয়ের জন্য পোষাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ, বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ ভারতীয় হাই কমিশনার, রিজার্ব ব্যাংক অব ইন্ডিয়া, বাংলাদেশ বানিজ্য মন্ত্রালয়, বাংলাদেশ-ভারতীয় বাণিজ্য মন্ত্রনালয় এর মাধ্যমে ক্রেতা লিলিপুট কিডস ওয়ার লিমিটেড কর্তৃপক্ষকে বার বার তাগাদা করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ২০১২ সালের ১০ জুলাই তারিখে বানিজ্য মন্ত্রনালয়ে দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকের মধ্যে লিলিপুট কিডস ওয়ার লিমিটেড এর চেয়ারম্যান সঞ্জীব নারুলা ২০১৩’র ২৫ জানুয়ারী তারিখের মধ্যে বিভিন্ন মেয়াদের সিডিউল মোতাবেক অপরিশোধিত বিল পরিশোধের অঙ্গীকার পূর্বক একটি লিখিত চুক্তিনামা সম্পাদন করেন।

ভারটেক্স এ্যাপারেল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ জহির হোসেইন জানান, সম্পাদিত চুক্তি মোতাবেক ভারতীয় এ প্রতিষ্ঠান বিল পরিশোধ করেনি। এর পর বারবার সঞ্জীব নারুলার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি লেনদেন অস্বীকার করেন ফলে আমরা বাধ্য হয়ে আইনের আশ্রয় নিয়েছি।

আদালতে বাদী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এডভোকেট জিয়া হাবীব আহ্সান, এডভোকেট মোহাম্মদ শরীফ উদ্দিন, এডভোকেট প্রদীপ আইচ প্রমুখ।

মতামত...