,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রামে হিন্দু ধর্মান্তরিত মুছাসহ আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের ৪ জনের ৫দিনের রিমান্ড

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ চট্টগ্রামের সিতাকুন্ডে সন্ত্রাস দমন আইনে দায়ের করা মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের চার সদস্যের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার দুপুর দুইটায় আদালতের অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম আ স ম শহীদুল্লাহ কায়সার এ আদেশ দেন।

চট্টগ্রাম আদালতের পুলিশ পরিদর্শক মো. মশিউর রহমান বাংলানিউজকে জানান, সীতাকুণ্ড থেকে গ্রেফতার হওয়া আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের চার সদস্যকে সন্ত্রাস দমন আইনের মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন জানালে  শুনানি শেষে আদালত পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন ।

 শনিবার দিনভর অভিযান চালিয়ে সীতাকুণ্ড থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের চার সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

চারজনের মধ্যে তিনজনকে শনিবার দুপুরে সীতাকুণ্ডের বাড়বকুণ্ড বাজারের পূর্ব পাশে একটি গোপন আস্তানায় অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয়।  তিনজন হল, মো. শিপন ওরফে ফয়সাল (২৫), খোরশেদ আলম (৩১) ও রাসেল মো. ইসলাম (৪১)।

সংগঠনটির বায়তুল মাল সম্পাদক মুছা ইবনে উমায়েরকে (২৫) সোমবার ১১ জুলাই সন্ধ্যায় একই স্থান থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

এসময় তাদের কাছ থেকে চারটি চাপাতি ও চারটি কিরিচ, ছয়টি মোবাইল ফোন, একটি ল্যাপটপ ও একটি ট্যাব এবং বেশকিছু জিহাদি বই উদ্ধার করা হয়।

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড থেকে আটক আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের চার সদস্যের মধ্যে মুছা ইবনে উমায়ের (২৫) ধর্মান্তরিত হয়ে জঙ্গি সংগঠনে যোগ দেয় বলে জানিয়েছে পুলিশ। আনসারউল্লাহ বাংলা টিমে যোগ দেয়ার পর পোশাক কর্মী মুছা সংগঠনটির বায়তুল মাল সম্পাদক হিসেবে কাজ করছিল বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, মুছা হিন্দু ধর্মাবলম্বী ছিল। বছর দুয়েক আগে সে আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার আগে মুছা মুসলমান ধর্ম গ্রহণ করে।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মুহাম্মদ রেজাউল মাসুদ বলেন, মুছার বাবার নাম অরুণ কান্তি দাশ। তাদের বাড়ি পটিয়া উপজেলার ছনহরা গ্রামে।

মুছা সিইপিজেডে ইয়ং ওয়ান গার্মেন্টসে কোয়ালিটি ইন্সপেক্টর পদে কর্মরত আছে। ধর্মান্তরিত হওয়ার পর মুছা পরিবার থেকে বিচ্যুত হয়ে যায় বলে জানান রেজাউল মাসুদ।

আটক হওয়া চারজনের কাছ খেবে চারটি চাপাতি ও চারটি কিরিচ, ছয়টি মোবাইল ফোন, একটি ল্যাপটপ ও একটি ট্যাব এবং বেশকিছু জিহাদি বই উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এসপি।

তিনি বলেন, আটক চারজনকে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করছি।  চট্টগ্রামে হামলা কিংবা নাশকতার কোন পরিকল্পনা তাদের ছিল কিনা সেটা আমরা খতিয়ে দেখছি।

 

মতামত...