,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা মহিলা আ. লীগের সভাপতি চেমন আরা ও সম্পাদক লুবনা

নিজস্ব প্রতিবেদক,২১ ফেব্রুয়ারী বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চেমন আরা বেগম ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে শামীমা হারুন লুবনা ঘোষণা করেন বেগম সাফিয়া খাতুন।

দ্বিতীয় অধিবেশনে মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ সভাপতি বেগম সাফিয়া খাতুন মাইকে কমিটি ঘোষণা করতে চাইলে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য শাহিদা আক্তার জাহান বাধা দেন। তিনি চিৎকার করে বলে উঠেন-‘ভোট ছাড়া কমিটি গঠন মানি না’। এ সময় তার সমর্থকরা তার পক্ষে োগান দিতে থাকেন। এরপর শুরু হয় হৈচৈ, হট্টগোল।

এসময় বেগম সাফিয়া খাতুন মাইকে বলেন, ‘ভোট চাইলেও ভোট হবে না। আমরা সমঝোতায় কমিটি করছি। চাইলে সব কিছু হয় না।’ তখন শাহিদা আক্তার বলেন, ‘ভোটে কমিটি না দিয়ে আপনারা যেতে পারবেন না। ২০ বছর অপেক্ষা করেছি। কাউন্সিলররা ভোটের জন্য অপেক্ষা করছে। আপনি আমাদের অভিভাবক, আমাদেরকে কমিটি চাপিয়ে দিবেন না।’ এ প্রতিবাদ উপেক্ষা করে সভাপতি হিসেবে চেমন আরা বেগম এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে শামীমা হারুন লুবনা’র নাম ঘোষণা করেন বেগম সাফিয়া খাতুন। এরপর সহ সভাপতি হিসেবে শাহিদা আক্তার জাহান, সংসদ সদস্য ওয়াসিকা আয়েশা খান, রেহেনা ফেরদৌস, কল্পনা লালা ও ফৌজিয়া পারভীন রত্নার নাম ঘোষণা করেন তিনি। এ সময় শাহিদা আক্তার জাহান আবার চিৎকার করে বলে উঠেন ‘আমার সহ সভাপতির দরকার নেই। আমি সাধারণ সম্পাদক চাই।’

এরপর বেগম সাফিয়া খাতুন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে খালেদা আক্তার চৌধুরী ও জাহানারা বেগম জুনুর নাম ঘোষণা করেন। সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়েছে রিজিয়া রেজা চৌধুরী নদভী ও ববিতা বড়ুয়াকে। পরবর্তীতে পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেয়া হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন।

কাউন্সিল অধিবেশন শেষ হওয়ার পর নেতাকর্মীরা একে একে বেরিয়ে যাচ্ছিলেন। এসময় সম্মেলন স্থল থেকে বের হয়ে আনিকা ক্লাবের মাঠে এলে শাহিদা আক্তার অজ্ঞান হয়ে মাঠে পড়ে যান। এসময় উপস্থিত নেতাকর্মীদের কয়েকজন তাকে ধরাধরি করে পাশের সার্জিস্কোপ হাসপাতালে নিয়ে যান। উল্লেখ্য, ১৯৯৮ সালে দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয়েছিল।

মতামত...