,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রাম বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের এসএসসি পরীক্ষাকালীন সময়ে অব্যাহতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম::চট্টগ্রাম বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ মাহবুব হাসান চলতি বছরে অনুষ্ঠেয় এসএসসি (মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট) পরীক্ষা সংক্রান্ত দায়িত্ব থেকে পরীক্ষাকালীন সময়ে অব্যাহতি নিয়েছেন । কারণ এ বছর তাঁর ছেলে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। এ সময়ে বোর্ডের পরীক্ষা সংক্রান্ত দায়িত্ব পালন করবেন উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ তাওয়ারিক আলম। বোর্ড সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। জানা যায়, পরীক্ষা কার্যক্রমের সঙ্গে এই কর্মকর্তার সরাসরি কোনো সংশ্লিষ্টতা (প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, পরিশোধন, উত্তরপত্র মূল্যায়ন ও ফল প্রস্তুত) না থাকলেও তিনি নীতিগতভাবে এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেয়ার মাধ্যমে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধ্যাদেশ ১৯৬১-র প্রথম রেগুলেশনের ৩ (১) ও (২) ধারা অনুযায়ী পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক চেয়ারম্যানের নিয়ন্ত্রণাধীনে শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা শাখার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। তার মূল কাজ, সরকার নির্ধারিত সময়ে পাবলিক পরীক্ষা আয়োজনের প্রস্তুতি নেয়া, সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা সম্পন্ন করা এবং প্রস্তুতকৃত ফল প্রকাশ করা।

চট্টগ্রাম বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর শাহেদা ইসলাম বলেন, ‘পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের কাজের সঙ্গে কোনো শিক্ষার্থী কিংবা পরীক্ষার্থীর সংশ্লিষ্টতার কোনো সুযোগ নেই। তবুও আমাদের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তাঁর নীতিগত অবস্থান থেকে এ বছরের এসএসসি পরীক্ষায় তার ছেলের অংশগ্রহণের কারণে পরীক্ষা সংক্রান্ত দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চেয়ে যে আবেদন করেছেন তা তাঁর সদিচ্ছার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে বিবেচনা করেছি। সেই হিসেবেই তাঁকে চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষা সংক্রান্ত দায়িত্ব থেকে সাময়িকভাবে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

বোর্ড সূত্রে জানা যায়, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাহবুব হাসান ২০১৭ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর বোর্ড চেয়ারম্যানের কাছে ২০১৮ সালের এসএসসি পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে তাঁর পরীক্ষা সংক্রান্ত দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেন। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বোর্ডের সচিব একই বছরের ৫ অক্টোবর পরীক্ষা নিয়ন্ত্রককে এই নির্দিষ্ট সময়ের জন্য তাঁকে পরীক্ষা সংক্রান্ত দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে চিঠি দেন। চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘এই আদেশ পরীক্ষার শুরুর দিন থেকে চূড়ান্ত ফল প্রকাশ পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

মতামত...