,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় পার্টির ফেরহাল ধরেছেন সোলায়মান আলম শেঠ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম::চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় পার্টির ফেরহাল ধরছেন সোলায়মান আলম শেঠ।মাহজাবীন মোরশেদ বাদ । সোলায়মান শেঠকে আহ্বায়ক করে নগর জাপার নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছেগত বৃহস্পতিবার রাতে । ১০১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটিতে সদস্যসচিব করা হয়েছে কমিটির সাধারণ সম্পাদক এয়াকুব চৌধুরীকে।

চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় পার্টির নগর কমিটি ভেঙে ২০১৪ সালের ৪ জুন সোলায়মান আলম শেঠের নেতৃত্বাধীন দলীয় সংসদ সদস্য মাহজাবীন মোরশেদকে আহ্বায়ক করে নগর জাপার কমিটি ঘোষণা করা হয়। সেই থেকে সোলায়মান আলম শেঠ ও মাহজাবীন মোরশেদের মধ্যে তীব্র বিরোধ চলে আসছে। ২০১৫ সালের ১০ সেপ্টেম্বর নগরীর জিইসি মোড়ে একটি কমিউনিটি সেন্টারে সম্মেলনে মাহজাবীন মোরশেদ সভাপতি ও এয়াকুব চৌধুরীকে সাধারণ সম্পাদক করে নগর জাপার কমিটির গঠন করা হয়। কমিটিতে শেঠের অনুসারীদের স্থান হয়নি বলে অভিযোগ রয়েছে। কমিটি ঘোষণার পর থেকে সোলায়মান শেঠ ও মাহজাবীন মোরশেদকে ঘিরে দলীয় কার্যক্রম দুই ধারায় বিভক্ত হয়ে পড়ে। অবশেষে সেই কমিটি ভেঙে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

ট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় পার্টির নগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও নতুন কমিটির সদস্যসচিব এয়াকুব চৌধুরী  বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার রাতে স্যার (হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ) নতুন কমিটিতে স্বাক্ষর করেছেন’।

জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ও নবঘোষিত কমিটির আহ্বায়ক সোলায়মান আলম শেঠ বলেন, ‘১০১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে আহ্বায়ক, সদস্য সচিব ছাড়া ৮ জনকে যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়েছে। সদস্য রয়েছেন ৯১ জন।

সোলায়মান আলম শেঠের কমিটি ভেঙে দেয়ার পর তার অনুসারীরা পার্টির সাবেক মহাসচিব ও সাংসদ জিয়াউদ্দিন বাবলুর কুশপুত্তলিকা দাহসহ আন্দোলন করেছিল। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে সোলায়মান আলম শেঠকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। গত সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আগে শেঠের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার ও মেয়র পদে দলীয় সমর্থন দেয়া হয়।

মতামত...