,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চবির মূল ফটকে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতদের তালা

aচবি সংবাদদাতা, বিডিনিউজ রিভিউজঃ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখায় সদ্য গঠিত ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যোগ্য ও অতীতে শিবির বিরোধী আন্দোলনে অংশ নেওয়াদের বঞ্চিত করার অভিযোগ এনে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে তালা ঝুলিয়েছে ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।

সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে তারা মূল ক্যাম্পাসের প্রবেশের এই ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেয়।পাশাপাশি দুপুর আড়াইটার নগরমুখী শাটলট্রেনটিও ১০ মিনিটের জন্য আটকে রাখে তারা। আন্দোলনকারীরা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের শাটলট্রেনের বগিভিত্তিক সংগঠন কনকর্ড, ভিএক্স, বাংলার মুখ ও এক নম্বর গেট ছাত্রলীগ বলে পরিচিত পক্ষের নেতাকর্মী। এরা সবাই সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের অনুসারী হিসেবে ক্যাম্পাসে রাজনীতি করেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা মূল ফটকে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করতে থাকে। এসময় ‘অবৈধ কমিটি মানি না’ স্লোগান দিতে থাকে তারা।

আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়াদের একজন আবদুল মালেক। তিনি ছাত্রলীগের সদ্য গঠিত কমিটির শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। তবে তার দাবি তিনি আরও উপরের পদে প্রত্যাশী ছিলেন।

আবদুল মালেক বিডিনিউজ রিভিউজকে বলেন, ‘সদ্য গঠিত পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যোগ্য ও অতীতে শিবির বিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া নেতাকর্মীরা বঞ্চিত হয়েছেন। অধিকাংশ নেতাকর্মীই প্রত্যাশিত পদে আসেননি। এজন্য বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা আন্দোলনে নেমেছেন। সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে আমাদের দাবি পুনরায় কমিটি ঘোষণা করে তাতে যোগ্য ও শিবির বিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়াদের ভালোভাবে স্থান দেওয়া হোক।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর নিয়াজ মোরশেদ রিপন বিডিনিউজ রিভিউজকে বলেন, ‘ছাত্রলীগের কমিটিতে পদবঞ্চিত ও প্রত্যাশীত পদ পায়নি অভিযোগ এনে কিছু নেতাকর্মী বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে তালা ঝুলিয়েছে। আমরা তাদের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করছি।’

আংশিক কমিটি গঠনের প্রায় একবছর পর সোমবার সকালে এ শাখায় ২০১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদ।

 

মতামত...