,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চমেক হাসপাতালে শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের ধর্মঘট

নিজস্ব প্রতিবেদক, ৬ মার্চ,বিডিনিউজ রিভিউজ.কম:: বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে চলমান শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের (ইন্টার্ন) ধর্মঘট চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালেও শুরু হয়েছে।

আজ রবিবার বেলা একটা থেকে এ ধর্মঘট শুরু করেন ইন্টার্নরা।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে এ ধর্মঘট পালন করা হচ্ছে বলে জানান চমেক শিক্ষানবিশ ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি রাশেদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের চার শিক্ষানবিশ চিকিৎসকের সাজা প্রত্যাহার ও নিরাপদ কর্মস্থলের দাবিতে কেন্দ্রীয় এই কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত ধর্মঘট চলবে।

এক প্রশ্নের জবাবে রাশেদুল বলেন, ধর্মঘটের আওতায় ১৩১৩ শয্যাবিশিষ্ট চমেক হাসপাতালের ওয়ার্ডগুলোতেই মূলত কাজ করছেন না তারা। জরুরি বিভাগে রোগীদের স্বাভাবিক চিকিৎসাসেবা চলছে।

চমেক হাসপাতালে প্রায় আড়াই শ শিক্ষানবিশ চিকিৎসক রয়েছেন। তারা বেলা একটা থেকে হাসপাতালের প্রধান ফটকে অবস্থান নিয়ে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চার শিক্ষানবিশ চিকিৎসকের সাজা প্রত্যাহারের দাবিসংব^লিত ব্যানার-প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি একজন নারী ইন্টার্ন চিকিৎসককে আপা সম্বোধন করায় বগুড়ার শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গুরুতর অসুস্থ রোগী আলাউদ্দিনের ছেলে আবদুর রউফকে বেদম মারধর ও অবমাননাকর সাজা দেন কয়েকজন শিক্ষনবিশ চিকিৎসক।

এ ঘটনায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের নির্দেশে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে গঠিত কমিটির প্রতিবেদনের পর চার শিক্ষানবিশ চিকিৎসকের ইন্টার্নশিপ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করা হয়। সেই সঙ্গে বগুড়ার এই হাসপাতালের বদলে তাদের অন্যত্র ইন্টার্নশিপ শেষ করতে হবে। ভবিষ্যতে এই ধরনের কাজ করলে তাদের পেশাগত সনদ বাতিল করা হবে বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। আর এই সাজার প্রতিবাদে তিন দিন ধরে ওই হাসপাতালে শিক্ষানবিশ চিকিৎসকদের ধর্মঘট চলছে।

মতামত...