,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চসিকের ডোর টু ডোর আবর্জনা অপসারন কার্যক্রম শুরু ১ আগষ্ট

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ চট্টগ্রাম, ৩১ মে মঙ্গলবার বিকেলে নগর ভবনের সম্মেলন কক্ষে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের বিভাগীয় ও শাখা প্রধানদের এক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমন্বয় সভায় আগামী ১ আগষ্ট সোমবার থেকে নগরীর ৭, ৮, ১৫, ২২, ২৩, ৩১ ও ৩৬ নং ওয়ার্ডে ডোর টু ডোর আবর্জনা অপসারন কার্যক্রম শুরু করার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। সভায় মেয়র বলেন, পর্য্যায়ক্রমে ৪১ টি ওয়ার্ডে এ কার্যক্রম সম্প্রসারিত হবে এবং ৩১ জুলাই এর মধ্যে ৪১ টি ওয়ার্ডে ডোর টু ডোর আবর্জনা সংগ্রহ ও অপসারন কার্যক্রম চালু হবে। মেয়র প্রতিদিন রাত ৭ টা থেকে রাত ১১ টার মধ্যে নগরবাসী সকলকে নির্ধারিত স্থানে ডাষ্টবিন ও কন্টেইনারে আবর্জনা ফেলার আহবান জানান এর পরে বা পূর্বে যত্রতত্র আবর্জনা ফেলার বদভ্যাস ত্যাগ করার পরামর্শ দেন। পরিচ্ছন্ন পরিবেশ সহ জনস্বাস্থ্যের সুবিধার্থে বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় মেয়র নগরবাসী’র সহযোগিতা কামনা করেন। সভায় বর্জ্য অপসারনে সংশ্লিষ্টদের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করে বলা হয়, দিনের বেলায় কোথাও বিন্দু পরিমান আবর্জনা পড়ে থাকতে পারবে না। বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় নিয়োজিত সকলকে সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব শতভাগ পালন করতে হবে। উন্নয়ন কার্যক্রমের ধীর গতিতে মেয়র অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, রাস্তা ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন, খাল ও নালার মাটি উত্তোলন কাজে নিয়োজিত সকল ঠিকাদারদের কাজের গতি বৃদ্ধি করে যথা সময়ে কাজ বুঝে নিতে হবে। বিদ্যুৎ বিভাগ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, নগরবাসীদের অন্ধকারে রেখে কর্মকর্তা কর্মচারীগণ আরাম আয়াসে দিন যাপনের কোন সুযোগ নেই। রাত দিন দায়িত্ব পালন করে নগরীকে শতভাগ আলোকিত করার নির্দেশ দেন। রাজস্ব বিভাগ সম্পর্কে বলেন, রাজস্ব আদায় সন্তোষজনক নয়। নাগরিক সেবার একমাত্র উৎস হোল্ডিং ট্যাক্স আদায় গতিশীল করে সেবার কাজে সহযোগিতা করতে হবে। সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন স্বাস্থ্য ও শিক্ষা বিভাগের সেবা আরো উন্নত করা সহ প্রতিটি বিভাগ ও শাখার কার্যক্রম সুচারুরূপে সম্পাদনের উপর জোর দেন। তিনি বলেন, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কর্মকান্ডের উপর মেয়রের সফলতা নির্ভর করছে। সে লক্ষে কর্মকর্তা কর্মচারীদের দায় দায়িত্ব নিয়ে প্রাপ্ত বেতন-ভাতা ও সুযোগ সুবিধা সমূহের সৎ ব্যবহার করতে হবে। কারোর গাফিলতি ও অবহেলার কারনে নাগরিক সেবা বাধাগ্রস্থ হলে বা প্রশ্নবিদ্ধ হলে তার পরিণামে কারোর জন্য শুভ ফল বয়ে আনবে না। মেয়র দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সকলকে শতভাগ আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে স্ব স্ব দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পাদনের পরামর্শ দেন। সমন্বয় সভায় প্রধান চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ শফিউল আলম, সচিব মোহাম্মদ আবুল হোসেন, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল মহিউদ্দিন আহমদ, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সেলিম আকতার চৌধুরী, প্রধান হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা মো. সাইফুদ্দিন, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ শফিকুল মন্নান ছিদ্দিকী, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী , মো. মাহফুজুল হক, উপ সচিব সাইফুদ্দিন মাহমুদ কাতেবী, স্থপতি এ কে এম রেজাউল করিম, নির্বাহী প্রকৌশলী মনিরুল হুদা, আবু ছালেহ, কামরুল ইসলাম, জন সংযোগ কর্মকর্তা মো. আবদুর রহিম, শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুর রহমান সহ বিভাগীয় ও শাখা প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।

মতামত...