,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চসিক মেয়র সকাশে বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইডেন রাষ্ট্রদূত

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নগর ভবনে মেয়র দপ্তরে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন এর সাথে বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইডেন রাষ্ট্রদূত Mr. John Frisell ৮ আগষ্ট সোমবার, দুপুরে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।  বৈঠকে মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন সিটি কর্পোরেশনের সেবার কর্মপরিধি, সেবার ধরন, আয়ের উৎস, তাঁর ভিশন সমূহ তুলে ধরে বলেন, সুইডেন বাংলাদেশের বন্ধু রাষ্ট্র।বাংলাদেশে সুইডেনের নানামুখি বিনিয়োগ রয়েছে। মেয়র রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে চট্টগ্রামে গার্মেন্ট,পর্যটন, জাহাজ নির্মাণ,জুতা, টেক্সটাইল শিল্প এবং আইটি খাতে চট্টগ্রামে বিনিয়োগের আহবান জানান। সহ নানান খাতে বিনিয়োগের আহবান জানিয়ে বলেন, চট্টগ্রামে ভূ প্রাকৃতিকভাবে বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ বিদ্যমান। নিরাপদ ও পরিবেশ বান্ধব চট্টগ্রামের মাধ্যমে দেশের সিংহভাগ আমদানী, রপ্তানী হয়ে থাকে। জনাব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, চট্টগ্রামকে বিশ্বমানের নগরীতে উন্নয়নের প্রয়াস চলছে। তিনি তাঁর ভিশন তুলে ধরে বলেন, চট্টগ্রাম দৃষ্টিনন্দন নৈসর্গিক ও বাসপোযোগী নগরী। মেয়র চট্টগ্রাম নগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, আলোকায়ন, সৌন্দর্যবর্ধন সহ বিবিধ aবিষয়ে সহযোগী হতে সুইডেন রাষ্ট্রদূতকে আহবান জানান। বর্তমান বিশ্বের জঙ্গী তৎপরতা প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, চট্টগ্রামে জঙ্গী বা সন্ত্রাসীদের কোন স্থান নেই। অন্যান্য রাষ্ট্রের তুলনায় বাংলাদেশ শান্তি ও নিরাপদ দেশ, তুলনামূলকভাবে চট্টগ্রামও শান্তি ও নিরাপদ নগরী। বৈঠকে রাষ্ট্রদূত গৎ. ঔড়যহ ঋৎরংবষষ মেয়রের কার্যক্রমের ভূয়সি প্রশংসা করে বলেন, বর্তমান মেয়রের গতিশীল নেতৃত্বে চট্টগ্রামে নৈসর্গিক সৌন্দর্য ফিরে এসেছে। তিনি আশা করেন তার নেতৃত্বে চট্টগ্রাম বিশ্বমানের নগরীতে উন্নিত হবে। রাষ্ট্রদূত সিটি মেয়রের ডোর টু ডোর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমের প্রশংসা করে বলেন, সুইডেনে প্রায় ৯৯ শতাংশ হাউস হোল্ড এ বর্জ্য ব্যবস্থাপনার আওতায় রয়েছে। এই বর্জ্যকে রিসাইক্লিংয়ের মাধ্যমে বায়োগ্যাস এবং তা থেকে সিএনজি কনভারশনও করা যায়। বর্তমানের প্রাকৃতিক গ্যাসের মজুদ ফুরিয়ে গেলে বর্জ্য থেকে উৎপাদিত গ্যাস দেশের কাজে লাগানো সম্ভব হবে। এই সময়ে চট্টগ্রাম মেয়রের ডোর টু ডোর বর্জ্য সংগ্রহ কার্যক্রম যুগোপযোগী বলে অভিমত ব্যক্ত করেন রাষ্ট্রদূত।

রাষ্ট্রদূত মেয়র দপ্তরে পৌঁছলে মেয়র তাঁকে সিটি কর্পোরেশনের মনোগ্রাম খচিত ক্রেষ্ট এবং ফুলেল শুভেচ্ছায় বরণ করেন। বৈঠকে প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, সচিব মোহাম্মদ আবুল হোসেন, মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম, কাউন্সিলরদের মধ্যে ছালেহ আহমদ চৌধুরী, নাজমুল হক ডিউক, হাসান মুরাদ বিপ্লব, মোরশেদ আকতার চৌধুরী, এ কে এম জাফরুল ইসলাম, মো. ইসমাইল , এস এম এরশাদ উল্ল্যাহ, এয়াছিন চৌধুরী আশু, মো. মোবারক আলী, মো. জহুরুল আলম জসিম, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিসেস আবিদা আজাদ সহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

মতামত...