,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চা শ্রমিকরা এবার মার্কা দেখে নয় প্রার্থীর যোগ্যতা দেখে ভোট দিবেন

tea gerdenbnr ad 250x70 1piklu chakroborty

পিকলু চক্রবত্তী, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ  চা বাগান অধ্যুষিত চায়ের রাজধানী শ্রীমঙ্গলে জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারণা। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে বড় হোটেল মোটেল গুলোতে চলছে জোড় নির্বাচনী আলোচনা। প্রচারণায় থেমে নেই কেউ- শিশু ,বালক ,বৃদ্ধ সবাই মেতেছে এই প্রচারণায়। সকাল থেকে শুরু করে রাত অব্দি ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন প্রার্থীরা। আর দুপুর২ টা থেকে শুরু করে রাত ৮ পর্যন্ত চলছে নিবাচর্নী প্রচারনার মাইকিং। প্রার্থীরা তাদের মার্কায় ভোট দেওয়ার জন্য মিনতি করছেন ভোটারদের কাছে।  প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন নির্বাচনে জিতলে এলাকার সার্বিক উন্নয়নে সর্বাত্তক প্রচেষ্ঠা চালাবেন।

এদিকে চা বাগান এলাকা বেশী হওয়ায় বি এন পি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের একটু বেশীই পরিশ্রম করতে দেখা যাচ্ছে। তবে থেমে নেই আওয়ামী লীগ প্রার্থীরাও ।

চা বাগান এলাকা নিয়ে জনমত আছে, চা শ্রমিক ভোটারদের বেশির ভাগই নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে থাকেন যা এর আগে হয়ে যাওয়া নির্বাচনের পর্যবেক্ষন থেকে উঠে এসেছে। তবে বাগানের ভোটাররা এবার বলছেন অন্য কথা। এবার মার্কা দেখে নয় প্রার্থীর যোগ্যতা দেখে ভোট দিবেন তারা।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক চা শ্রমিক বলেন, “ স্থানীয় নির্বাচন ও জাতীয় নির্বাচন নিয়ে অনেক পার্থক্য রয়েছে। এই নির্বাচনে আমরা ভোট দিয়ে সরকার গঠন করতে পারবো না। যখন জাতীয় নির্বাচনে শেখ হাসিনার নৌকার ভোট আসবে তখন আমরা নৌকায় ভোট দেওয়ার কথা ভাববো। আর এই স্থানীয় নির্বাচনে আমরা যৌগ্য প্রার্থীদের দেখে ভোট দেব সে হোক আওয়ামীলীগ , বিএনপি বা স্বতন্ত্র”।

আর চা শ্রমিক নেতারা বলছেন , যদি ভোটের আগে বাগানের মদের দোকান গুলো কয়েকদিনের জন্য বন্ধ করা হয় তাহলে ভোটাররা মাথা খাটিয়ে যৌগ্য দেখে ভোট দিতে পারবেন এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সুবিধে হবে।

বাগানের এদিকে  উপজেলার রাজঘাট , কালিঘাট, সাতগাও এই তিনটি ইউনিয়নে বিএনপি এর কোন প্রার্থী নির্বাচনে লড়াই করছে না।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা যায় , আগামী ২৮ মে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ৯ টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১১৬টি পদে প্রার্থী সংখ্যা মোট ৪৮০ জন ,এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৩৩ জন, সাধারন সদস্য (মেম্বার)  পদে ৩৩২ জন , সংরক্ষিত মহিলা সদস্য (মহিলা মেম্বার) পদে ১১৫  লড়াই করছেন। ১টি সাধারণ সদস্য পদের প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দীতায় নির্বাচিত হয়েছেন।  ৯টি ইউনিয়নে মোট ভোটার ১ লক্ষ ৯৩ হাজার ৫৬৭ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ১০০টি ।

১নং মির্জাপুর ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডের ৯টি ভোট কেন্দ্রে  মোট ভোটার ১৮ হাজার ৯৬১ জন (পুরুষ ভোটার ৯ হাজার ৫৪২ জন এবং মহিলা ভোটার ৯ হাজার ৪১৯ জন) । চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন- আবু সুফিয়ান চৌধুরী (আওয়ামীলীগ), মোঃ সুফি মিয়া (বিএনপি), বর্তমান চেয়ারম্যান মো. ফিরুজ মিয়া (আওয়ামীলীগ বিদ্রাহী), হাজী মোঃ মস্তান মিয়া (জাতীয় পার্টি), সঞ্জয় চক্রবর্তী (স্বতন্ত্র) ও মোঃ শফিকুল ইসলাম (স্বতন্ত্র)।

২নং ভূনবীর ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ১০টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার ২৩ হাজার ২২৭ জন ভোটার জন ( পুরুষ ভোটার ১১ হাজার ৫৪৬ জন এবং মহিলা ভোটার ১১ হাজার ৬৮১ জন) । বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুর রসিদ (আওয়ামীলীগ), মোঃ চেরাগ আলী (আওয়াস্বতন্ত্র)-আনারস, মোঃ ফারুক আহমদ (বিএনপি), সুফিয়া বেগম (স্বতন্ত্র) ও শাহ মেহাম্মদ আলী মিয়া (স্বতন্ত্র)।

৩নং শ্রীমঙ্গল ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ১৫টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার ৩৬ হাজার ৪৫ জন (পুরুষ ভোটার ১৮ হাজার ৪৩ জন এবং মহিলা ভোটার ১৮ হাজার ২ জন)। বর্তমান চেয়ারম্যান ভানুলাল রায় (আওয়ামীলীগ), মোঃ ইমাদ আলী (বিএনপি), আফজাল হক (আওয়ামীলীগ বিদ্রেহী) ও দুধু মিয়া (স্বতন্ত্র)।

৪নং সিন্দুরখাঁন ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ১২টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার ২২ হাজার ৩০৫ জন (পুরুষ ভোটার ১১ হাজার ২৩৮ জন এবং মহিলা ভোটার ১১ হাজার ৬৭ জন)। বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল­াহ আল হেলাল (আওয়ামীলীগ), ইয়াছিন আরাফাত রবিন (বিএনপি), বদরুল ইসলাম সোহেল (জাতীয় পার্টি), আবু কামাল খায়রুজ্জামান (বিএনপি বিদ্রেহী) ও অরুন দেব (স্বতন্ত্র)।

৫নং কালাপুর ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ১১টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার ২৩ হাজার ৫৫৯ জন (ে পুরুষ ভোটার ১১ হাজার ৮৪৬ জন এবং মহিলা ভোটার ১১ হাজার ৭১৩ জন)। বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মতলিব (আওয়ামীলীগ), মোঃ আব্দুল হাই (বিএনপি), মোঃ কামাল হোসেন (জাতীয় পার্টি) ও মুজিবুর রহমান (স্বতন্ত্র)।

৬নং আশিদ্রোন ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ১৪টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার  ২৭ হাজার ৪৫৮ জন (পুরুষ ভোটার ১৩ হাজার ৮৪২ জন এবং মহিলা ভোটার ১৩ হাজার ৬১৬ জন) বর্তমান চেয়ারম্যান রনেন্দ্র প্রসাদ বর্ধন জহর (আওয়ামীলীগ), মোঃ তাজ উদ্দিন  (বিএনপি) ও মকসুদুর রহমান (স্বতন্ত্র)।

৭নং রাজঘাট ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ১০টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার ১৮ হাজার ২০৩ জন( পুরুষ ভোটার ৯ হাজার ১২৬ জন এবং মহিলা ভোটার ৯ হাজার ৭৭ জন।) বর্তমান চেয়ারম্যান বিজয় বুনার্জী (আওয়ামীলীগ) ও মাখন লাল কর্মকার (আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী)।

৮নং কালিঘাট ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ১০টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার ১৫ হাজার ২৫১ জন  পুরুষ ভোটার ৭ হাজার ৬৯৯ জন এবং মহিলা ভোটার ৭ হাজার ৫৫২ জন) ) বর্তমান চেয়ারম্যান প্রানেশ গোয়ালা (আওয়ামীলীগ) ও পরাগ বাড়ই (স্বতন্ত্র)।

৯নং সাতগাঁও ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ডে ৯টি ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার ৮ হাজার ৫৫৮ জন পুরুষ ভোটার ৪ হাজার ২৮৬ জন এবং মহিলা ভোটার ৪ হাজার ২৭২ জন। বর্তমান চেয়ারম্যান রঘুনাথ দেব রিংকু (আওয়ামীলীগ) ও মিলন শীল (আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী) ।

ইউনিয়ন ওয়ারী পরিসংখ্যানে দেখা যায় এবার সবচেয়ে বেশি ভোটার ৩নং শ্রীমঙ্গল ইউনিয়নে (মোট ভোটার সংখ্যা : ৩৬০৪৫ জন) এবং সবচেয়ে কম ভোটার সাতগাঁও ইউনিয়নে (মোট ভোটার সংখ্যা : ৮৫৫৮ জন ।

মতামত...