,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

চিরিরবন্দরে কাঁচা রাস্তার বেহালদশা

road kada

bnr ad 250x70 1মোহাম্মদ মানিক হোসেন, চিরিরবন্দর(দিনাজপুর) প্রতিনিধি,বিডিনিউজ রিভিউজঃ চিরিররব্দর সহ দিনাজপুর সর্বত্র মানুষ আজ বৃষ্টিতে কাঁক ভেজা। বর্ষা তার পূর্নরুপ নিয়ে হাজির। বৈচিত্রের দেশ বাংলাদেশে আষাঢ় ও শ্রাবণ দু’মাস বর্ষাকাল হলেও ঋতুচক্রের পট পরিবর্তনের ফলে আকাঙ্খিত বৃষ্টি না হওয়া অনাকাঙ্খিত বৃষ্টিপাত হওয়া নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা। তবে এখন চলছে বর্ষাকাল । রবি বলেছেন- নীল নবঘনে আষাঢ় গগনে তিল ঠাঁই আর নেই রে, ওগো আজ তোরা যাসনে ঘরের বাইরে। কিন্তু দারিদ্র দেশে এখন আর বৃষ্টিকে ভয় পেলে পেটের ক্ষুধা মেটানো অসম্ভব হয়ে পড়ে।

সারাদেশের ন্যায় চিরিরবন্দরে বর্ষার অবিশ্রান্ত ঝিরঝির ঝরা মানুষের ভোগান্তিকে ক্রমেই বৃদ্ধি করে দিচ্ছে। উপজেলার রাস্তাঘাটের বেহাল অবস্থা বৃদ্ধিসহ পানি জমে কাঁচা রাস্তা গুলোর হাটুর্ভতি কাঁদা। উপজেলার বিভিন্ন রাস্তাঘাট ঘুরে দেখা গেছে পা দেওয়া জায়গা নেই, চলাচলের অনুপযোগী হয়ে গেছে। এদিকে চলছে আমন ধান রোপনের শেষ মূর্হতের কাজ তাই গ্রামের বিভিন্ন সড়ক দিয়ে চলাচল করছে পাওয়ারটিলার, হেরো সহ ভারী যানবাহন যার কারনে রাস্তার বেশী ভাগেই নষ্ট হচ্ছে।

এদিকে রোগ বালাইয়ের সংক্রামণ, ব্যবসা বানিজ্যের স্বাভাবিকতায় বিঘœতা সৃষ্টির মাধ্যমে মানুষের জনজীবনে স্থবিরতা নেমে এসেছে। বৃষ্টিতে সৃষ্ট দুর্ভোগে পড়েন শ্রমজীবি মানুষ। সময় মত কাজে যাইতে পারছে না কেটে খাওয়া দিনমজুর যার ফলে সংসার চালাতে হিমসিম খাচ্ছে তারা।

উপজেলার সাতনালা ইউনিয়নের মাস্টারপাড়া গ্রামের রিকসা চালক হাফিজুল ইসলাম বলেন, দারিদ্রতা আমাদের নিত্য দিনের ঘটনা, আমি রিকস্ াচালাই পার্শ্ববর্তী শহর সৈয়দপুরে, কিন্তু কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে আমার উর্পাজন বন্ধ হয়ে গেছে , বরন জমানো কিছু টাকা ছিলো তাও শেষ হয়েছে,ইনজিও থেকে টাকা নেওয়া আছে তার কিস্তি চালাতে পারছিনা।

বিরতহীন বৃষ্টির দুর্ভোগে পড়েন কর্মস্থলে যাওয়া লোকজনসহ অফিসগামী,স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীরা। সকাল থেকে হওয়ায় বৃষ্টিপাতের ফলে বিপাকে পড়ছেন কর্মজীবী মানুষ।

মতামত...