,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

ছেলের দেয়া আগুনে বাবার করুণ মৃত্যু

sফরিদপুর সংবাদদাতা , বিডিনিউজ রিভিউজঃ  ফরিদপুরে নতুন মডেলের মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় ছেলে ফারদিন হুদা মুগ্ধর (১৭) দেওয়া আগুনে দগ্ধ বাবা রফিকুল হুদা (৪৮) মারা গেছেন।

বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। বার্ন ইউনিটের আবাসিক চিকিৎসক পার্থ শঙ্কর পাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে মা ও বাবাকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করে মুগ্ধ। এতে মারাত্মক দগ্ধ হন এ টি এম রফিকুল হুদা। দগ্ধ হন মা সিলভিয়া হুদা (৪০)।

ফরিদপুর জেলা শহরের কমলাপুর ডিআইবি বটতলা এলাকায় তাদের বাসা। রফিকুল হুদা প্রাক্তন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) এ টি এম শামসুল হুদার ছোট ভাই।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, এ বছর ফরিদপুর জিলা স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ মুগ্ধ তার বাবার কাছে নতুন মডেলের একটি মোটরসাইকেল দাবি করে। এর আগে ছেলেকে পাঁচ লক্ষাধিক টাকার ইয়ামাহা ব্র্যান্ডের আর ১৫ মডেলের একটি মোটরসাইকেল কিনে দেন তারা। সেই মোটরসাইকেলটি পরিবর্তন করে নতুন মডেলের মোটরসাইকেলের দাবি তোলে মুগ্ধ। নতুন মোটরসাইকেল কিনে দিতে অস্বীকৃতি জানালে বাবার ওপর ক্ষুব্ধ হয় সে। একপর্যায়ে মুগ্ধ ঘরের মধ্যে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় মা-বাবার গায়ে। এতে রফিকুল হুদার শরীরের বিভিন্ন অংশ, সিলভিয়া হুদার পায়ের কিছুটা অংশ ও তার নিজের পায়ের কিছু অংশ দগ্ধ হয়।

তাদের উদ্ধার করে প্রথমে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে রফিকুলের অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় ঢামেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আজ বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

মতামত...