,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

জঙ্গি সুমনই প্রকাশক টুটুলকে কুপিয়েছিল

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ শীর্ষ জঙ্গি সুমন হোসেন পাটোয়ারি ওরফে সাকিব ওরফে সিহাব ওরফে সাইফুল (২০) রাজধানীর লালমাটিয়ায় ‘শুদ্ধস্বর’ প্রকাশনার কার্যালয়ে ঢুকে প্রকাশক আহমেদুর রশিদ টুটুলকে নিজ হাতে কুপিয়েছিল।

বৃহস্পতিবার মিন্টো রোডে ডিএমপি’র মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ও কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান মো. মনিরুল ইসলাম এ কথা জানান। তিনি জানান, নিষিদ্ধ ঘোষিত আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) সদস্য সুমন চাপাতি দিয়ে টুটুলকে তিনটি কোপ দিয়েছিল।

এদিকে শুদ্ধস্বরের প্রকাশক আহমেদ রশীদ টুটুল হত্যাচেষ্টা মামলায় গ্রেফতারকৃত আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য শিহাব ওরফে সাইফুল ওরফে সুমন ওরফে সাকিবকে ৫ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা ও অপরাধ তথ্য বিভাগ (ডিবি) বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে তাকে হাজির করে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন জানায়।

শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম লুৎফর রহমান শিশির ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে বুধবার রাতে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল সুমনকে রাজধানীর বিমানবন্দর এলাকার বাসস্টেশন থেকে গ্রেফতার করে।

২০১৫ সালের ৩১ অক্টোবর মোহাম্মদপুরের লালমাটিয়ার শুদ্ধস্বর প্রকাশনার অফিসে প্রকাশক আহমেদুর রশিদ টুটুল ও শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটের জাগৃতি প্রকাশনীর প্রকাশক ফয়সল আরেফিন দীপনের ওপর হামলা চালায় নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলাটিম। এতে দীপন মারা যান এবং টুটুলসহ তিনজন গুরুতর আহত হন। এসব ঘটনায় মোহাম্মদপুর ও শাহবাগ থানায় মামলা করা হয়।

বিজ্ঞানবিষয়ক লেখক অভিজিৎ রায়সহ ১০ জন লেখক, ব্লগার ও ভিন্নমতাবলম্বীদের খুনের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ডিবি গত ১৯ মে সুমনসহ এবিটির ছয় সদস্যের নাম ও ছবি ঢাকা মহানগর পুলিশের অফিশিয়াল সাইটে প্রকাশ করেছিল। এতে তথ্যদাতাদের জন্য দুই থেকে পাঁচ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়। সুমন ছাড়াও বাকি পাঁচজন শরিফ, সেলিম, সিফাত, রাজু ও সাজ্জাদ নামে পরিচিত।

সংবাদ সম্মেলনে মনিরুল ইসলাম আরও জানান, শুদ্ধস্বরের কার্যালয়ে সুমনসহ পাঁচজন জঙ্গি হামলায় অংশ নেয়। এদের সবার হাতে চাপাতি ছিল। গ্রেফতারের পর সুমন স্বীকার করেছে তিনি টুটুলকে চাপাতি দিয়ে তিনবার আঘাত করেন। এ ছাড়া সুমন মোহাম্মদপুরে এবিটির বোমা প্রশিক্ষণকেন্দ্রে বোমা তৈরির প্রশিক্ষণ নেন। সুমন চট্টগ্রাম থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাস করে সেখানে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন। সুমন ২০১৫ সালের প্রথম দিকে তিনি এবিটিতে যোগ দেন। তিনি প্রথমে চট্টগ্রামে প্রশিক্ষণ নেন। পরে তিনি বড় কাজের জন্য ঢাকায় আসেন। খবর- বাসস।

 

মতামত...