,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

জহুর হকার্স মার্কেটের প্রবেশপথে নির্মাণাধীন স্থাপনা ভেঙে দিল চসিক

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজ.কম::চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) ভ্রাম্যমাণ আদালত নগরীর জহুর হকার্স মার্কেটের প্রবেশপথে নির্মাণাধীন একটি স্থাপনা ভেঙে দিয়েছে। ব্যবসায়ীদের দাবি, সেখানে তারা বঙ্গবন্ধুসহ তিন আওয়ামী লীগ নেতার ভাস্কর্য বানাচ্ছিলেন। ওই ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী হাকিম বলছেন, অনুমতি না নিয়ে স্থাপনা নির্মাণ শুরু করায় তিনি নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়েছেন। কিন্তু বুধবার বেলা দেড়টার দিকে ওই ঘটনার পর হকাররা সেখানে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন এবং এক পর্যায়ে হকার্স মার্কেটের ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দেন।

চট্টগ্রাম পৌর জহুর হকার মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম বলেন, মার্কেটের লালদিঘি অংশের প্রবেশপথের পাশে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জহুর হকার মার্কেট যার নামে সেই আওয়ামী লীগ নেতা মরহুম জহুর আহমদ চৌধুরী এবং সম্প্রতি মৃত্যুবরণকারী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র আলহাজ নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর ভাষ্কর্য স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছিলেন তারা। এর অংশ হিসেবে প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম এনে কাজও শুরু হয়েছিল।

বুধবার দুপুরে সিটি কর্পোরেশনের এস্ব  নেতাদের খোঁজ করেন তখন নামাজের সময় বলে সমিতির নেতারা কেউ ছিলেন না। এই প্রতিকৃতিকে অবৈধ বলে তারা সেটা ভেঙে দিয়ে চলে গেছে। এতে আমাদের ব্যবসায়ীরা চরম ক্ষুুব্ধ।সিটি কর্পোরেশনের পক্ষে ওই উচ্ছেদ অভিযানের নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জাহানারা ফেরদৌস ও আছিয়া আক্তার।

সাংবাদিকদের জাহানারা ফেরদৌস বলেন, দেড়টার দিকে তারা সেখানে গিয়ে দেখেন, নালার ওপর স্ল্যাব বসিয়ে একটি স্থাপনা করা হচ্ছে। অথচ সেজন্য কোনো অনুমতি মার্কেট কর্তৃপক্ষ নেয়নি। হকার সমিতির নেতারা আমাদের সাথে কথা বলতে এসেছিলেন। আমরা বলেছি, আপনারা মেয়র মহোদয়ের অনুমতি নিয়ে আসুন। এরপর আমরা চলে আসি। সেখানে শুধু একটা দেয়াল ছিল। আর কিছু ছিল না।

জহুর আহমদ চৌধুরীর কনিষ্ঠ সন্তান জসিম উদ্দিন চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, মার্কেটে আমাদের কোনো দোকান নেই। বাবা স্বাধীনতা সংগ্রামে একজন নেতা ছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান, আমার বাবা জহুর আহমদ চৌধূরী ও সম্প্রতি মৃত্যুবরণকারী এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী এ তিনজনের তিনটি ভাষ্কর্য বসাচ্ছিল মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতি। কিন্তু দুপুরে চসিকের ভ্রাম্যমাণ আদালত কাউকে কোনো কিছু না বলে এটি ভেঙে দেয়। এ ঘটনায় ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ হয়েছেন। আমি এসব ভাষ্কর্য পুনঃনির্মাণের দাবি জানাচ্ছি।

মতামত...