,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

জিহাদের নামে সন্ত্রাস ইসলাম সমর্থন করে না- আইজিপি

জিহাদের নামে মানুষ হত্যা ইসলাম সমর্থন করে না বলে মন্তব্য করেছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহীদুল হক।তিনি বলেন, ‘যে দেশে মসজিদ  থাকে,আজান হয়,নামাজ হয়, সেখানে ইসলাম আছে। ওই দেশে কোনো জিহাদি আন্দোলন হতে পারে না। জিহাদ করতে হলে মা-বাবার অনুমতি লাগবে,লাগবে সরকারের অনুমতি। বিশ্বব্যাপি জঙ্গিবাদ ও আইএসের উত্থান হচ্ছে, বিকৃত মানসিকতার কারনেই তারা জিহাদের নামে মানুষ হত্যা করছে,ইসলাম তা মোটেও সমর্থন করে না।’
 igp
শনিবার বিকেল ৫ টায় লক্ষ্মীপুর স্টেডিয়ামে জেলা কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তবে এসব কথা বলেন তিনি।সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন পুলিশ সুপার শাহ মিজান সাফিউর রহমান।
আইজিপি বলেন, ‘২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়ে রাজনৈতিক দলের নেতাদের হত্যা করে নেতৃত্ব শূন্য করার পরিকল্পনা ছিল, এটা পুলিশের তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। আইএসের নামে যারা মসজিদে হামলা করে মুয়াজ্জিন হত্যা করে, তারা মুসলমান হতে পারে না, এটি একটি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড। ইসলাম এটি সমর্থন করে না।’
তিনি বলেন, ‘কমিউনিটি পুলিশের লোকজন যেন থানায় দালালে পরিণত না হন, সেদিকেও নজর রাখতে হবে। তাহলে পুলিশ ও কমিউনিটি পুলিশের মধ্যে একটি সেতুবন্ধন তৈরি হবে।’
প্রলিশ প্রধান বলেন, ‘সন্ত্রাস. মাদক, বাল্য বিয়ে, ইভটিজিং এর বিরুদ্ধে জনসচেতনতা তৈরি করতে হবে। তাহলে সমাজে শান্তি আসবে। দেশে আইনশঙ্খলা ভালো থাকবে।’
এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য একেএম শাহজাহান কামাল ও মো. আবদুল্লাহ আল মামুন, চট্রগ্রাম বিভাগীয় রেঞ্জের ডিআইজি মো. শফিকুল ইসলাম, হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজি মল্লিক ফখরুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক মো, জিল্লুর রহমান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মিয়া গোলাম ফারুক পিংকু, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে সম্প্রতি সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত চন্দ্রগঞ্জ থানা সন্ত্রাস নির্মূল কমিটির আহ্বায়ক ওমর ফারুকের মা ও স্ত্রীর হাতে জেলা পুলিশ সুপার ও আইজিপির পক্ষ থেকে দুই লাখ টাকার চেক তুলে দেয়া হয়।

মতামত...