,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

জয় দিয়ে বছর শুরু বাংলাদেশের

956
নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা,১৫, জানুয়ারি (বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম): জয় দিয়ে নতুন বছর শুরু করলো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। প্রথম টি-২০ তে জিম্বাবুয়েকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে টাইগাররা। ফলে চার ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকলো স্বাগতিকরা। 

টস জিতে প্রথম ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে ১৬৩ রান করে জিম্বাবুয়ে। জবাবে ৮ বল হাতে রেখে ৬ উইকেটে হাজয় দিয়ে নতুন বছর শুরু করলো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়েকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে টাইগাররা। ফলে চার ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকলো স্বাগতিকরা।

 

টস জিতে প্রথম ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে ১৬৩ রান করে জিম্বাবুয়ে। জবাবে ৮ বল হাতে রেখে ৬ উইকেটে হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ।

 

১৬৪ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নামেন তামিম ইকবাল এবং সৌম্য সরকার। প্রথম তিন ওভার থেকে তারা ২৬ রান তুলে নেন। তবে, ইনিংসের চতুর্থ ওভারে দুভার্গ্যজনক রান আউটের ফাঁদে পড়েন সৌম্য সরকার (৭ রান)।

ইনিংসের সপ্তম ওভারে গ্রায়েম ক্রেমারের বল ডাউন দ্য উইকেটে খেলতে গিয়ে বাতাসে ভাসিয়ে দেন তামিম। সিবান্দার হাতে লংঅফে ধরা পড়েন তিনি। বিদায়ের আগে ২৪ বলে তিনটি চার আর একটি ছক্কায় ২৯ রান করেন তামিম।

 

অভিষেক ম্যাচে ব্যাটিংয়ে নেমে ব্যক্তিগত ৬ রান করে উইলিয়ামসের বলে দলীয় দশম ওভারে বোল্ড হন অভিষিক্ত হওয়া শুভাগত হোম। মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে ৪৪ রানের জুটি গড়ে বিদায় নেন সাব্বির রহমান। দলীয় ১৫তম ওভারে গ্রায়েম ক্রেমারের বলে তুলে মারতে গিয়ে ম্যালকম ওয়ালারের তালুবন্দি হন সাব্বির। তবে বিদায়ের আগে ৩৬ বলে ৪টি চার আর একটি ছক্কা হাঁকান ৪৬ রান করা সাব্বির।

 

পরের ওভারেই ফেরেন মুশফিক। মাসাকাদজার বলে সিকান্দার রাজার তালুবন্দি হওয়ার আগে মুশফিকের ব্যাট থেকে আসে ২৬ রান। ১৯ বলে তিনটি বাউন্ডারি হাঁকান মুশফিক। দ্রুত ফেরেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদও। মাত্র ৭ রান করেন এই অলরাউন্ডার। তবে শেষে অভিষিক্ত নুরুল হাসানকে সঙ্গে নিয়ে বাকি কাজটুকু ভালোভাবেই শেষ করেন সাকিব আল হাসান।রিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ।

 

১৬৪ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নামেন তামিম ইকবাল এবং সৌম্য সরকার। প্রথম তিন ওভার থেকে তারা ২৬ রান তুলে নেন। তবে, ইনিংসের চতুর্থ ওভারে দুভার্গ্যজনক রান আউটের ফাঁদে পড়েন সৌম্য সরকার (৭ রান)।

ইনিংসের সপ্তম ওভারে গ্রায়েম ক্রেমারের বল ডাউন দ্য উইকেটে খেলতে গিয়ে বাতাসে ভাসিয়ে দেন তামিম। সিবান্দার হাতে লংঅফে ধরা পড়েন তিনি। বিদায়ের আগে ২৪ বলে তিনটি চার আর একটি ছক্কায় ২৯ রান করেন তামিম।

 

অভিষেক ম্যাচে ব্যাটিংয়ে নেমে ব্যক্তিগত ৬ রান করে উইলিয়ামসের বলে দলীয় দশম ওভারে বোল্ড হন অভিষিক্ত হওয়া শুভাগত হোম। মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে ৪৪ রানের জুটি গড়ে বিদায় নেন সাব্বির রহমান। দলীয় ১৫তম ওভারে গ্রায়েম ক্রেমারের বলে তুলে মারতে গিয়ে ম্যালকম ওয়ালারের তালুবন্দি হন সাব্বির। তবে বিদায়ের আগে ৩৬ বলে ৪টি চার আর একটি ছক্কা হাঁকান ৪৬ রান করা সাব্বির।

 

পরের ওভারেই ফেরেন মুশফিক। মাসাকাদজার বলে সিকান্দার রাজার তালুবন্দি হওয়ার আগে মুশফিকের ব্যাট থেকে আসে ২৬ রান। ১৯ বলে তিনটি বাউন্ডারি হাঁকান মুশফিক। দ্রুত ফেরেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদও। মাত্র ৭ রান করেন এই অলরাউন্ডার। তবে শেষে অভিষিক্ত নুরুল হাসানকে সঙ্গে নিয়ে বাকি কাজটুকু ভালোভাবেই শেষ করেন সাকিব আল হাসান।

 

মতামত...