,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

টঙ্গিতে জেএমবির আমিরসহ ৪ গ্রেফতার অস্ত্র উদ্ধার, বাড়ির মালিক আটক

aটঙ্গি সংবাদদাতা, বিডিনিউজ রিভিউজঃ র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৫) টঙ্গির আউচপাড়া মোক্তারবাড়ি রোডের একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) দক্ষিণাঞ্চলের আমিরসহ চার সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতার হলেন- জেএমবি’র দক্ষিণাঞ্চলের আমির মাহমুদুল হোসেন তানভির (২৮), সদস্য আশিকুল আকবর ওরফে আবেশ (২৩), শরিয়ত উল্লাহ ওরফে শুভ (১৯) ও নাজমুল সাকিব (২০)। তানভির যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এবং আশিকুর রহমান রংপুরের প্রাইম মেডিক্যাল কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

র‌্যাব ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে ৮টি বোমা, ১টি পিস্তল, ১টি ম্যাগজিন, শতাধিক রাউন্ড গুলি, ২টি কুড়াল, ৮টি চাপাতি, ছুরি, জেহাদি বই, গোলাবারুদ, ওয়াকিটকি ও বোমা তৈরির সরঞ্জামাদি।

র‌্যাব গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃস্পতিবার এ অভিযান চালায় বলে জানা গেছে।

র্যাবের লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেন, আউচপাড়ার ৬ তলা ভবনের ৪  তলায় এই অভিযান চালানো হয়। জঙ্গিরা দুই রুমের ফ্ল্যাটটি ভাড়া নিয়ে বসবাস করছিলেন। পরিবার নিয়ে ওঠার কথা বলেছিলেন জঙ্গিরা।

তিনি বলেন, গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে বোমা তৈরিতে পারদর্শী তানভির। তার গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলায়। ২০০৪ সালে নবম শ্রেণিতে পড়ার সময় জেএমবিতে যোগ দেন তিনি। পরবর্তী সময়ে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। তানভির রাজধানীর মিরপুরসহ জেএমবির বিভিন্ন  প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে  প্রশিক্ষণ দিতেন। সবশেষে টঙ্গির ওই বাড়িতে আসেন তানভির। র্যাব কর্মকর্তা  আরও বলেন, ‘আশুলিয়ার এসআই ইব্রাহিম হত্যা ও হোসনি দালানে বোমা হামলায় যারা সম্পৃক্ত ছিল, তারা তানভিরের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছিল’।

র্যাব কর্মকর্তা বলেন, অপর তিনজনের মধ্যে আশিকুর রহমান রংপুরের প্রাইম মেডিক্যাল কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। নাজমুল সাকিব মাদ্রাসা থেকে পাস করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে ঢাকা এসেছিলেন। এ ছাড়া শরিয়তউল্লাহ যশোরের এমএম কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ।

র্যাবের কর্মকর্তা এই আস্তানা থেকে আরও নাশকতার পরিকল্পনা ছিল জানিয়ে  বলেন, ‘রাজধানী থেকে সরে এসে জেএমবি ঢাকার আশপাশে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র করছে। ওই ফ্ল্যাট এ মাসের  প্রথম দিকে ভাড়া নেন তানভির। বাড়িওয়ালা পরিচয়পত্র চাইলে পরে দেবেন বলেন জানান তিনি। এরপর ১৪ জুলাই বাসায় ওঠেন তানভির ।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বাড়ির মালিক  জেসমিন আক্তার। তবে বাড়ি দেখাশুনা করতেন তার মেয়ের জামাই শরিফুল ইসলাম। তিনি সাংবাদিকদের জানান, গত ৫ জুলাই তানভির ব্যবসায়ী পরিচয় দিয়ে ফ্লাট ভাড়া নেন। এ জন্য অগ্রিম দিয়েছিলেন ২ হাজার টাকা। কথা ছিল ঈদের পরে স্ত্রী ও ছোট ভাইকে নিয়ে ফ্ল্যাটে উঠবেন তিনি। পরিচয়পত্র পরে দেবেন বলে জানিয়ে চলে যান তানভির। তবে তারা ১৪ জুলাই ফ্ল্যাটে ওঠেন। এরপর রং করার জন্য চাবি চাওয়া হলেও তানভির তা মালিককে দেননি। শরিফুল ইসলামের ধারণা, বাড়ির নিরাপত্তাকর্মী কয়েক দিন ধরে ছুটিতে থাকার সুযোগে  তানভির বোমা, গুলি ও অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম ফ্ল্যাটের ভেতর নিয়ে থাকতে পারেন।

কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেন, বাড়িওয়ালাকেও হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তিনি যথাযথ নিয়ম মেনে বাড়ি ভাড়া দিয়েছিলেন কিনা যাচাই করা হচ্ছে।

 

মতামত...