,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

ঠাকুরগাঁওয়ে তীব্র শীত জোঁকে বসেছে, সূর্যের দেখা মিলছে না!

ইমন রায়, ঠাকুরগাও প্রতিনিধি, গত এক সপ্তাহ  ধরে ঠাকুরগাঁওয়ে রোদ উঠছে বেলা ১১ টার পর;  শুরু হয়েছে  শীত; সঙ্গে ঠাণ্ডা বাতাস ও ঘন কুয়াশা।

মঙ্গলবার ভোর থেকে বেলা ১১ টা পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে শীতের প্রভাব দেখা গেছে। রাস্তা-ঘাট যেমন ফাঁকা, তেমনি কুয়াশার ভিড় ঠেলতে হেডলাইট জ্বালাচ্ছে বিভিন্ন যান।
শহরের সরকারপাড়া এলাকার বাসিন্দা রুবেল ইসলাম বিডিনিউজ রিভিউজ  ডটকমকে বলেন, “ এক সপ্তাহ ধরে শীত ও হিমেল হাওয়া বাড়ছে। জ্বর-সর্দিতে আক্রান্ত হয়েছি ইতোমধ্যেই।”
কালিতলা এলাকার রিকশাচালক কৃষ্ণ দেবনাথ  বলেন, “ঠাণ্ডায় মানুষ রিকশায় উঠতে চায় না।”
দিনের বেলা হেডলাইট জ্বালিয়ে গাড়ি চালাতে হচ্ছে বলে মজা করে হাসলেন ট্রাকচালক আলমগির ।
শহরের শান্তিরাম পারার সবিতা রানী বলেন, কুয়াশার কারণে ভোরে কিছু দেখা যায় না। সন্ধ্যার পরপরই নেমে আসে ঠাণ্ডা।
ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের চিকিৎসক শাহজাহান নেওয়াজ জানান, শীত আসার সঙ্গে শীতজনিত রোগ শ্বাসকষ্ট, ডায়রিয়া, জ্বর, সর্দি-কাশি, নিউমোনিয়ার আক্রমণ বাড়ছে। হাসপাতালে আসতে শুরু করেছে শীতজনিত রোগে আক্রান্তরা।
জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলছেন, ইতোমধ্যেই দরিদ্রদের জন্য মন্ত্রণালয় থেকে প্রায় তিন হাজার কম্বল পাওয়া গেছে। আরও একটি চাহিদাপত্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।
শীত মোকাবিলায় সব ধরনের সরকারি প্রস্তুতি রয়েছে বলে তিনি জানান।

মতামত...