,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

ঠাকুরগাঁও জেলায় রেজিঃ বিহীন মোটর সাইকেলে্র ছড়াছড়ি প্রশাসন নির্বিকার

aইমন রায়, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি, বিডিনিউজ রিভিউজঃ ঠাকুরগাঁও জেলায় রেজিঃ বিহীন মোটর সাইকেলে্র ছড়াছড়ি প্রশাসন নির্বিকার।জেলায় বিভিন্ন মোটর সাইকেলে পত্রিকার নম ও প্রেস লেখা ইনারা কারা?   এতে পেশাদার সাংবাদিকদর মাঝে মধ্যে পড়তে হচ্ছে নানা হয়রানি। শুধুমাত্র প্রেস লেখাই নয় কেউ আবার পুলিশ, আইনজীবী ও সি,আই,ডি পুলিশ এর নাম ও স্টিকার লাগিয়েও বেড়াচ্ছে এ প্রান্ত থেকে অপরপ্রান্তে। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাাঁকি দিতে এই সাংবাদিক, প্রেস, পুলিশ, সি,আই,ডি পুলিশ ও আইনজীবী ইত্যাদি স্টিকার ব্যবহার করে অপরাধীরা নানান অপকর্ম করে যাচ্ছে বলে যানা গেছে। ইতিপূর্বে প্রেস লেখা স্টিকার যুক্ত মটর সাইকেল ব্যবহার করে অপকর্ম করতে গিয়ে আটকের মত ঘটনাও ঘটেছে ঠাকুরগাঁও জেলায়। সম্প্রতি সারাদেশে মটর সাইকেল অথবা ব্যক্তিগত গাড়িতে সংবাদিক, প্রেস, পুলিশ কিংবা আইনজীবী ইত্যাদি লেখা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুলিশের আইজিপি নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হলেও সরেজমিনে ঠাকুরগাঁও জেলার বিভিন্ন এলাকায় দেখা গেছে ব্যক্তিগত গাড়ি কিংবা মটর সাইকেলে অনেকেই রেজিষ্ট্রেশন না করিয়ে প্রেস, পুলিশ, আইনজীবী লেখা দিয়ে গাড়ি চালাচ্ছে। এতে করে সরকার হারাচ্ছে রাজস্য। এছাড়া প্রেস, সাংবাদিক, আইনজীবী , জরুরী বিদ্যুৎ , মৎস্য অধিদপ্তর, জেলা কার্য্যালয়ের পানি বিভাগ, শিক্ষা বিভাগ সহ আরো কতনা কি ইত্যাদি লিখে দাপিয়ে বেরাচ্ছে। যদিও সাংবাদিক, পুলিশ , কিংবা, আইনজীবী ন বলে জানা যায়। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দেওয়াই তাদের মুল উদ্যেশ্য। এজন্যই তারা এই স্টিকার ব্যবহার করে । শুধুমাত্র প্রেস বা সাংবাদিক লেকা স্টিকারই নয় ইতিপূর্বে পুলিশ না হয়েও মটর সাইকেলে পুলিশ লেখা স্টিকার ব্যবহার করে থানা পুলিশের হাতে আটক হওয়ার মত অনেক ঘটনা ঘটেছে। নাম প্রকাশ না করা শর্তে একজন সিনিয়র সাংবাদিক , এই প্রতিবেদককে বলেন যেসব গনমাধ্যমের স্টিকার ব্যবহার করছে তাদের তথ্য বিভাগে , ডিএফ টি আছে কিনা আমার জানা নেই। তবে তিনি অবশেষে বলেন এরকম ভুয়া স্টিকার মোটরসাইকেলে লাগিয়ে বেড়ানো মোটেও ঠিক নয়। কারণ আইন সবার জন্য সমান ।

মতামত...