,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

ঠাকুরগাঁও নারী নির্যাতনের ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ ২জন গ্রেফতার

ইমন রায়, ঠাকুরগাঁও,বিডিনিউজ রিভিউজঃ  ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা আখানগর ধনিপাড়ায় এক নারীকে নির্যাতনের ঘটনায় ১০ জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে । এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে ইউপি সদস্যসহ দুইজনকে গ্রেফতার করে রুহিয়া থানা পুলিশ ।

আজ শুক্রবার সকালে বেলাল হোসেন নামে এক ব্যক্তি তার স্ত্রীকে নির্যাতনের ঘটনায় এ মামলা করেন । আসামিরা হলেন- ফজলুর রহমান (৫০), ইউপি সদস্য মনিরাম বর্মন (৩৫), রফিকুল ইসলাম (৪১), মো. সাজু (২২), সাদেকুল (৪০), রেজাউল (৫০), জনি (২০), জাহাঙ্গীর (৩০), চারুক (৩৫) এবং আব্বাস (২৮) ।

জানা যায়, সদর উপজেলার আখানগর ইউনিয়নের দক্ষিণ ধনিপাড়া গ্রামে শালিসের নামে এক গৃহবধূকে প্রকাশ্যে মারপিট ও কানধরে উঠবস করানো হয়েছে । স্থানীয় ইউপি মেম্বারের নেতৃত্বে এলাকার কতিপয় যুবক ওই গৃহবধূ ও তার কথিত প্রেমিককে  মারপিট করে ১০০ বার কান ধরে উঠবস করায় । উঠবস করার সময় গৃহবধূ অচেতন হয়ে পড়লেও তাকে নিষ্কৃতি দেয়া হয়নি । পরে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন । হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গৃহবধূ ও তার স্বামী বেলাল হোসেন জানান, বুধবার সকালে বেলাল হোসেন রাজমিস্ত্রির কাজে গেলে বাড়িতে একা ছিলেন গৃহবধূ । নূর ইসলাম নামে গ্রামের এক ব্যক্তি এ সময় ওই গৃহবধূর ঘরে ঢুকে পড়ে। প্রতিবেশী ফজলু, সাজু, সাদেক, রেজেকুল জাহাঙ্গীর ও দুলালসহ এলাকাবাসী ওই গৃহবধূর বাড়ি ঘেরাও করে  রাখে । অবৈধ মেলামেশার অভিযোগে এলাকাবাসী গৃহবধূকে বাড়ি থেকে পাশ্র্ববর্তী আখানগর আদর্শ প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ধরে নিয়ে যায় এবং ইউপি সদস্য মনিরাম বর্মন ও ইউপি সদস্যা তাহেরা বেগমের নেতৃত্বে গ্রামে সালিশ বসানো হয় । বিকেল ৫ টায় সালিশে গৃহবধূ ও নূর ইসলামকে অপরাধী সাব্যস্ত করে তাদের দুজনকে মারপিট ও কান  ধরে উঠবস করা হয় । মেম্বার মনিরাম ও গ্রামের কয়েক যুবক গৃহবধূকে মারপিট করে । পরে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে । এ ঘটনায় নির্যাতিত গৃহবধূর স্বামী বেলাল হোসেন রুহিয়া থানায় ১০ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন । রুহিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খান মোহাম্মদ শাহরিয়ার জানান, বিষয়টি অবগত হওয়ার পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইউপি সদস্যসহ আরো একজনকে গ্রেফতার করেছে । বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে ।

মতামত...