,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

তারের জঞ্জালে বন্দী, গ্রীন ও ক্লীন চট্টগ্রাম

bnr ad 250x70 1নাছির মীর, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ চট্টগ্রাম, বন্দর নগরী চট্টগ্রাম তারের জঞ্জালে বন্দী  । পিডিবি, টেলিফোন,   tarইন্টারনেট আর ডিসের খোলা তার গোটা নগরজুড়ে ঝুলছে! এক প্রান্ত হতে অপর প্রান্ত শুধু তার আর তার ঝুলছে!

গ্রীন ও ক্লীন চট্টগ্রাম রুপান্তরের যে কার্যক্রম  বর্তমান মেয়র  চালিয়ে যাচ্ছেন তাতেও টনক নড়েনী তার ব্যবসায়ীদের। চট্টগ্রাম শহরের লক্ষ লক্ষ সাইন বোর্ড উচ্ছেদ করে ত্রুন মেয়র চট্টগ্রামের মানুষকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন! কারণ সবারই নিচক ধর্না ছিল সাইন বোর্ড উচ্ছেদ অভিযান ‘আই  ওয়াস’! কিন্তু না,দিন যতই যাচ্ছে নগরবাসীর বিশ্বাস আর আস্থা ঠাই করে নিলেন মেয়র আজম নাছির উদ্দিন। মেয়রের যেমন কথা তেমন কাজ! গোটা নগরে কোথাও কোন সাইন বোর্ড নেই! সত্যি তাই।

সকালের লাল সূর্যের আলো-জলমল রোদ্দুর নগরীর কোনায়-কানায় পরশ বিলিয়ে অপ্রুপ দৃশ্যের অবতারনা করেছে তা নগরবাসী পূর্বে আর দেখেনি! অপূর্ব!

গ্রীন নগরের রুপ পেয়েছে চট্টগ্রাম  কিন্তু মাননীয় মেয়র, ক্লীন রুপে ফিরে আসতে নগর ঝুড়ে তারে্নে!জঞ্ঝাল সরাতে হবে। আপনার অসম্ভবকে সম্ভব করার দৃঢ়তাই পারে এমন অসাধ্য সাধনে!

তারের ঝঞ্ঝাল নগরীর সৌন্দর্য নষ্ট হওয়ার পাশাপাশি প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। তাই নগরবাসীকে জঞ্জাল মুক্ত করতে উন্নত দেশের আদলে চট্টগ্রামেও মাটির নিচ দিয়ে আলাদা চ্যানেল করে ক্যাবল লাইন নেয়ার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারেন আপনি।

এলোমেলোভাবে টানানো গুচ্ছগুচ্ছ  তারের জঞ্জাল। এমন দৃশ্য চোখে পড়বে চট্টগ্রাম নগরীর প্রায় সবখানেই। যেখানে ডিশের লাইন, টেলিফোন আর ইন্টারনেটের নানা তারে সয়লাব রাস্তার দুইপাশের বিদ্যুতের খুটি। বিভিন্ন সংস্থা যার যার মতো করে অগোছালোভাবে এসব লাইন টানছে এদিক সেদিক। কোথাও কোথাও তার ছিড়ে পড়ছে রাস্তায়। তাতে বাড়ছে বিপদের ঝুঁকি।

দুর্ঘটনার ঝুঁকি এড়াতে এসব তারকে শৃঙ্খলায় আনা প্র্যোজন। তবে দীর্ঘদিন ধরে অব্যবস্থাপনার কারণে এ ব্যাপারে শৃঙ্খলা আনা কষ্টসাধ্য বটে! অসম্ভব নয়।

 বিশৃংখল এসব তারের জঞ্জাল পরিষ্কার করা হলে বন্দর নগরী চট্টগ্রাম গ্রীন ও ক্লীন নগরে পরিণত হবে।

 

মতামত...