,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

দ্রুত সুস্থতা কামনায় প্রধানমন্ত্রী, লন্ডনে মুস্তাফিজের সফল অস্ত্রোপচার সম্পন্ন

Mustafiz taygr1ক্রীড়া প্রতিবেদক, বিডিনিউজ রিভিউজঃ  প্রথমবারের মতো কাউন্টি খেলতে গিয়েই ইঞ্জুরীতে পড়েন বাংলাদেশ ক্রিকেটের নতুন সুপারস্টার মুস্তাফিজুর রহমান।  বাঁ কাঁধে বড় ইঞ্জুরীর কারণে কাউন্টির এবারের আসর থেকে ছিঁটকে পড়েন কাটার মাস্টার। দ্রুত ইঞ্জুরী থেকে সেরে উঠার জন্য অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন ছিল মুস্তাফিজের। বৃহস্পতিবার ১১ আগস্ট লন্ডনে মুস্তাফিজের সফল অস্ত্রোপচার করা হয়।

ইংল্যান্ডের সাউথ কেনসিংটনের বুপা ক্রমওয়েল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন মুস্তাফিজ। আজ বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় বেলা দুইটায় অস্ত্রোপচার করার কথা ছিল ফিজের। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটি স্থানীয় সময় বিকাল ৩ টা ৪০ মিনিটে করা হয় (বাংলাদেশ সময় রাত ৮টা ৪০)। বুপা ক্রমওয়েল হাসপাতালের চিকিৎসক অ্যান্ড্রু ওয়ালেস সফলভাবেই শেষ করেছেন মুস্তাফিজুর রহমানের বাঁ কাঁধের অস্ত্রোপচার। ‘টেলিস্কোপ সার্জারি’ নামে পরিচিত এ ধরনের অস্ত্রোপচারে সাধারণত তেমন কাটাকাটি  করতে হয় না। কাঁধ ও বাহুর সংযোগস্থলের সামনে ও পেছনে দুটি ছিদ্র করেই চোট সারানোর কাজ সারা হয়। অন্যদিকে অস্ত্রোপচারের পর আজ রাতে হাসপাতালেই থাকবে হবে মুস্তাফিজকে।

 সাধারণত এই ধরণের অস্ত্রপাচারের পর খেলায় ফিরতে প্রায় পাঁচ-ছয় মাস লাগে । তবে চিকিৎসক অ্যান্ড্রু ওয়ালেস জানিয়েছেন, মুস্তাফিজের নেটে ফিরতে ১২ সপ্তাহের মতো সময় লাগবে। বর্তমান মুস্তাফিজের সাথে আছে বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপন ও বিসিবির চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী। এদিকে মুস্তাফিজের অস্ত্রোপচার চলার সময় তাঁর সাথেই ছিলেন দেবাশিষ চৌধুরী। তিনি আশা ব্যক্ত করে বলেন, চার থেকে ছয় সপ্তাহের মধ্যেই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবেন মুস্তাফিজ।

মুস্তাফিজকে সাহস জোগাতে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান সকাল থেকেই ছিলেন হাসপাতালে। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের প্রতিটি খেলোয়াড়ের গুরুত্বের কথা জানান পাশাপাশি মুস্তাফিজ সম্পর্কে তিনি বলেন, “বিসিবির কাছে প্রত্যেক খেলোয়াড়ই গুরুত্বপূর্ণ। এর আগে সাকিব-তামিমদেরও অস্ত্রোপচার হয়েছে। তবে মুস্তাফিজ অনেক ছোট, অল্প কিছুদিন হয়েছে জাতীয় দলে খেলছে, তাই ওকে সাহস দেওয়ার জন্য এসেছি।”

অস্ত্রোপচারে মুস্তাফিজের ভীতির কথাও জানান বিসিবি প্রধান। তিনি বলেন, “ও (মুস্তাফিজ) আমাকে বলেছে, এমনিতে ভয় লাগে না, তবে সুই নাকি একটু ভয় পায়।”

অন্যদিকে মুস্তাফিজের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেছে দেশের প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা সহ পুরো দেশের মানুষ। এদিকে লন্ডনে বুপা ক্রমওয়েল হাসপাতালে মুস্তাফিজকে দেখতে আসেন বাংলাদেশ হাইকমিশনের ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনার খন্দকার এম তালহা। এছাড়া মুস্তাফিজের সুস্থতা কামনা ও সাহস যোগানোর জন্য অনেক প্রবাসী বাংলাদেশিও আসেন হাসপাতালে।

 

মতামত...