,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

নতুন বেতন কাঠামোতে এমপিওভুক্ত শিক্ষকরাও

নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা , ২০,ডিসেম্বর(বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকম):সরকারি চাকরিজীবীদের মতো এমপিওভুক্ত শিক্ষক ও কর্মচারীরাও নতুন স্কেলে বেতন পাবেন বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। গত ১ জুলাই থেকে বর্ধিত বেতন বকেয়াসহ তারা পাবেন।

সচিবালয়ে রবিবার দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘রবিবার এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে একটি আদেশ জারি করা হবে।’ পরে বিকেলের দিকে আদেশটি জারি করা হয়।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আগামী জানুয়ারি মাস থেকেই নতুন স্কেলে বেতন পেতে শুরু করবেন। তারা গত ১ জুলাই থেকে বকেয়া বেতনও পাবেন। তবে এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা কবে থেকে বর্ধিত বেতন পেতে শুরু করবেন তা শিক্ষামন্ত্রী জানাতে পারেননি।

গত ১৫ ডিসেম্বর নতুন বেতন কাঠামোর ‘চাকরি (বেতন ও ভাতাদি) আদেশ, ২০১৫’ গেজেট জারি করে সরকার। নতুন কাঠামোতে সর্বোচ্চ বেতন (গ্রেড-১) ৭৮ হাজার টাকা ও সর্বনিম্ন (গ্রেড-২০) আট হাজার ২৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়। তবে গেজেটে প্রায় পাঁচ লাখ এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বিষয়ে কিছু বলা ছিল না। এ নিয়ে শিক্ষকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়।

যদিও এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের ক্ষেত্রেও গত বছরের ১ জুলাই থেকে নতুন বেতন কাঠামো কার্যকরে ‘চাকরি ও বেতন কমিশন, ২০১৩’, এ সংক্রান্ত সচিব কমিটি ও মন্ত্রিসভা বৈঠকের সিদ্ধান্ত ছিল। গত ৭ সেপ্টেম্বর সামরিক ও বেসামরিক সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নতুন বেতন কাঠামোর অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আদেশে বেতন কমিশন ও সচিব কমিটির সুপারিশের বিষয়টি তুলে ধরে বলা হয়, ‘এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের অনুদান সহায়তা নতুন বেতন-স্কেল বাস্তবায়নের তারিখ অর্থাৎ ১ জুলাই ২০১৫ তারিখ থেকে কার্যকর হবে।’

নতুন বেতন কাঠামোর অনুযায়ী এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের সুযোগ-সুবিধা দিতে অর্থ মন্ত্রণালয় চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘অর্থ মন্ত্রণালয়ের ওই চিঠি আমরা দেরিতে পেয়েছি।’

নতুন বেতন কাঠামোতে টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড বাদ দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন স্তরের সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পাশাপাশি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও সরকারের এ সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করে আসছিলেন।

শিক্ষামন্ত্রী এ বিষয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‘সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেল বিলুপ্ত হলেও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের পদোন্নতি কিংবা অন্য কোন পদ্ধতিতে সুযোগ-সুবিধা দেওয়া যায় তা আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে ঠিক করা হবে।’
2015_07_08_06_08_34_kAjzo8EKp4pJJn1PKA9LDk1D1f3TDo_512xauto

মতামত...