,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

পহেলা বৈশাখকে সামনে রেখে ইলিশের বাজারে আগুন

Hilsa-Fish-230x155-1নিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ কদিন বাদেই পহেলা বৈশাখ। তবে মাওয়া ঘাটে এখন যেনো  সেই উৎসবের রঙ। নদীর জলস্রোত নয়, বরং নানা পেশাজীবীদের জনস্রোত ঘাটজুড়ে। উদ্দেশ্য একটাই, বৈশাখের সকালে পান্তা সাথে চাই পদ্মার ইলিশ।

আর তাই ভোর রাতেই শুরু হয়ে গেছে ক্রেতাদের আনাগোনা, আর বিক্রেতাদের ব্যস্ততা।

ভোরের আলো ফুটতে তখনও ঘণ্টাখানেক বাকি; কিন্তু পদ্মার পাড়ে শুরু হয়ে গেছে, শ্রমিকের ব্যস্ততা। ঘাটে আসা মাছ নিয়ে রওয়ানা হচ্ছেন, বাজারের দিকে।

পূব আকাশে সূর্য উকি দেয়ার সাথে সাথে সরগরম মাওয়া ঘাটের বাজার।

সামনে পয়লা বৈশাখ, তাই মাছ ব্যবসায়ীদের এই ভিড়ে দেখা মিলছে শহুরে চাকরিজীবী-সহ নানান পেশাজীবীদের। উদ্দেশ্য, ইলিশ কেনা।

একজন এসেছেন রাজধানীর গুলশান থেকে। ভোররাত থেকেই ঘুরে ঘুরে দেখছেন ইলিশ। কিন্তু, আকাশ ছোঁয়া দামে মাছের গায়ে হাত দেয়াও যেন কঠিন।

বিক্রেতারা বলছেন, সারা বছর ইলিশের যে চাহিদা থাকে, বৈশাখে তা বেড়ে যায় কয়েকগুণ। সরবরাহেও রয়েছে ঘাটতি।

তবে, ভোজনরসিক বাঙালিকে কে আটকায়? পয়লা বৈশাখে অনেকেরই তাই পাতে চাই পান্তা-ইলিশ।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, বর্ষবরণের উৎসবের ক্ষণ যত এগিয়ে আসবে, ততটাই উত্তাপ বাড়বে রূপালি ইলিশের দামে।

যদিও, মাছটির এখন প্রজনন মৌসুম। তাই কয়েকটি নদীতে মার্চ-এপ্রিল জুড়ে জাল ফেলা নিষিদ্ধ। তবুও মাছ শিকারে কোন ভাটা নেই,নেই কোন সরকারি তদারকি। শুধু ইলিশ শিকার নিশিদ্ধ করার ঘোষণা দিয়েই দায়িত্ব শেষ করেছেন ক্তৃ পক্ষ।

বি এন আর/০০১৬/০০৪/০০৮/০০০৪৮৮৪/এস

মতামত...