,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

পার্বত্য ভূমি বিরোধ নিস্পত্তি কমিশন আইন-১৬ বাতিলের দাবীতে মানিকছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল

aআবদুল মান্নান, মানিকছড়ি সংবাদদাতা, বিডিনিউজ রিভিউজঃ পার্বত্য ভূমি বিরোধ নিস্পত্তি কমিশন আইন (সংশোধন) ২০১৬ বাতিলের দাবীতে ৩ পার্বত্য জেলায় বাঙ্গালী সংগঠনের উদ্যোগে টানা ৩৬ ঘন্টা হরতাল শেষে কেন্দ্র থেকে পূর্বঘোষিত ১৮ আগস্ট জেলা, উপজেলায় বিক্ষোভ মিছিলের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার মানিকছড়িতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে পার্বত্য বাঙ্গালী সংগঠন।
সকাল সাড়ে ৯টায় মানিকছড়ি বাজার মসজিদ রোড থেকে বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের উদ্যোগে উক্ত বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেন এ অঞ্চলে আন্দোলনরত অন্য অংগঠনগুলোও। উক্ত বিক্ষোভ মিছিলটি বাজার হয়ে আমতলা গিয়ে উপজেলার দৃশ্যমান জনপদ ঘুরে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কের আমতলা মোড়ে পথসভায় বক্তব্য রাখেন, বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. মাঈন উদ্দীন, স্থানীয় নেতা মো. মোক্তাদিও, মো. জাহেদুল ইসলাম, মো. এয়াকুব আলী, ও আলী হোসেন।
বক্তারা বলেন, সরকার পার্বত্যাঞ্চলে বসবাসরত বাঙ্গালীদের মতামত না নিয়ে ১৯৯৭ সালে সম্পাদিত পার্বত্য চুক্তির আলোকে গঠিত পার্বত্য ভূমি বিরোধ নিস্পত্তি কমিশন আইন-২০০১ এ ‘পার্বত্য ভূমি বিরোধ নিস্পত্তি কমিশন (সংশোধন)আইন, ২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগতভাবে গত ১ আগস্ট অনুমোদন দেয়। ফলে ওই সময়ের পর থেকে এ অঞ্চলে বসবাসরত বাঙ্গালীদের সংগঠনগুলো টানা ৩৬ ঘন্টা হরতাল পালন শেষে ১৮ আগস্ট জেলা , উপজেলা পর্যায়ে বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচী পালন করেন।
উল্লেখ্য যে, সম্প্রতি ‘পার্বত্য ভূমি বিরোধ নিস্পত্তি কমিশন (সংশোধন)আইন, ২০১৬’ এর খসড়ার মতে এখন থেকে এ আইনে ১জন অবসর প্রাপ্ত বিচারপতি কমিশনের চেয়ারম্যান, তিন পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, তিন সার্কেল চিফ, আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যানের প্রতিনিধি ও বিভাগীয় কমিশনারের প্রতিনিধি নিয়ে ৯ সদস্যের এ পার্বত্য ভূমি বিরোধ নিস্পত্তি কশিশন। বাঙ্গালী সংগঠনগুলোর অভিযোগ এ আইনের ফলে বাঙ্গালীর পক্ষের কোন যুক্তিতর্ক এখানে অগ্রাধিকার পাবে না। কারণ কমিটির ৯ সদস্যের মধ্যে ৭ সদস্যই উপজাতিদের পক্ষের। তাই এ সংশোধিত আইন বাতিলসহ সর্বক্ষেত্রে পার্বত্য বাঙ্গালীদেও সাংবিধানিক অধিকার নিশ্চিত করার জোর দাবী জানান বক্তারা।

 

মতামত...