,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

পৌর নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী যাচাই-বাছাই

দেশে প্রথমবারের মতো দলীয়ভাবে অনুষ্ঠিতব্য আসন্ন পৌর নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত আজকালের মধ্যে  আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করতে পারে বিএনপি। ২০-দলীয় জোট ও বিএনপির সিনিয়র নেতাদের প্রায় সবাই নির্বাচনে অংশ নেওয়ার পক্ষে। গতকাল ২০-দলীয় জোটের বৈঠকে উপস্থিত অধিকাংশ নেতাই পৌর নির্বাচনে যাওয়ার ব্যাপারে খালেদা জিয়াকে গ্রিন সিগন্যাল দিয়েছেন। বৈঠকে জামায়াতে ইসলামী, লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি, ইসলামী ঐক্যজোট, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি, লেবার পার্টিসহ জোট নেতারা অংশ নেন।

ইতোমধ্যে বুধবার থেকেই নির্বাচনে অংশ নিতে ইচ্ছুক প্রার্থীদের তালিকা যাচাই-বাছাই করছে বিএনপি। তবে জেলা নেতারা যে তালিকা কেন্দ্রে পাঠিয়েছেন, তাদের অধিকাংশই বর্তমানে বিভিন্ন মামলা-হয়রানির ভয়ে আত্মগোপনে রয়েছেন। এ নিয়ে দুয়েক দিনের মধ্যে বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের সঙ্গে সাক্ষাত্ করে প্রার্থীদের হয়রানি না করার ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানাবেন। দলীয় নেতারা এই তথ্য জানিয়েছেন।

জানা গেছে, বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশানস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে বসে সম্ভাব্য প্রার্থী যাচাই-বাছাইয়ে ব্যস্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা হলেন-দলের যুগ্ম মহাসচিব মো. শাহজাহান, আন্তর্জাতিক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপনের নেতৃত্বে ঢাকা বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, সহপ্রচার সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, সহদফতর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম, নির্বাহী কমিটির সদস্য বেলাল আহমেদ, কেন্দ্রীয় সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আবুল খায়ের ভূঁইয়াসহ দলের কয়েকজন নেতা। তারা বিভিন্ন জেলা নেতাদের ফোন করে প্রার্থী তালিকা নিয়ে জেলাওয়ারি তালিকা প্রস্তুত করছেন। এরপর চূড়ান্ত তালিকা চেয়ারপারসনের কাছে জমা দেবেন।

এ বিষয়ে ঢাকা বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ জানান, তারা জেলা নেতাদের ফোন করে প্রার্থীর নাম নিয়ে কেন্দ্রীয়ভাবে প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করছেন। এ তালিকা চেয়ারপারসনের হাতে তুলে দেওয়া হবে। তবে তারা যে প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করেছেন তাদের অধিকাংশই আত্মগোপনে রয়েছেন।

বরিশাল বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার  জানিয়েছেন, তারা প্রার্থী তালিকা কেন্দ্রে পাঠাচ্ছেন। কেন্দ্র এই প্রার্থী তালিকা যাচাই-বাছাই শেষে চেয়ারপারসনকে সরবরাহ করবেন। চেয়ারপারসন পরে এই তালিকা চূড়ান্ত করবেন।
রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আসাদুল হাবীব দুলু  জানিয়েছেন, তারা প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করেছেন। অধিকাংশ ক্ষেত্রে আগে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারাই দলীয় প্রতীকে স্থানীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন।

নাটোরের সিংড়া পৌর মেয়র শামীম আল রাজী জানিয়েছেন, তার মতো যারা গত ২০১১ সালের জানুয়ারি মাসে অনুষ্ঠিত মেয়র নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছিলেন অধিকাংশ ক্ষেত্রে তারাই থাকছেন প্রার্থী তালিকায়। একই কথা জানিয়েছেন জামালপুর সদরের বর্তমান পৌর মেয়র ওয়ারেছ আলী মামুন। তিনি বলেন, প্রার্থী তালিকায় বর্তমানে যারা মেয়র আছেন তারাই এগিয়ে রয়েছেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহ বলেন, বুধবার রাতে চেয়ারপারসনের সঙ্গে তাদের সিনিয়র নেতাদের বৈঠকে অধিকাংশ সদস্য পৌর নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে চেয়ারপারসনকে গ্রিন সিগন্যাল দিয়েছেন। আজকালের মধ্যে যেকোনো সময় পৌর নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে বিএনপির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে।

পৌর নির্বাচন বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের কার্যক্রম নিয়ে সিনিয়র নেতাদের বৈঠকে আলোচনা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপির মতো একটি বড় দলকে কিছুই না জানিয়ে তড়িঘড়ি করে নির্বাচন কমিশন পৌর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করায় কমিশনের সমালোচনা করা হয়েছে বৈঠকে। তা ছাড়া পৌর নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু হয় সেজন্য দুয়েক দিনের মধ্যে বিএনপির একটি প্রতিনিধি সিইসির সঙ্গে সাক্ষাত্ করে তার প্রতি পরিবেশ সৃষ্টির আহ্বান জানাবেন। এ ছাড়া নির্বাচন সামনে রেখে ব্যাপক ধড়পাকড়ের কড়া সমালোচনা করা হয় বৈঠকে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়  বলেন, পৌর নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসছে নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার তত বেড়ে যাচ্ছে। যারা বিএনপির প্রতিনিধি হবে বা দলের জন্য কাজ করবে তাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার করে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। কেউ বাড়িতে থাকতে পারছে না। জনগণ সঙ্গে না থাকায় পুলিশ দিয়ে অরাজনৈতিকভাবে সরকার নির্বাচনী ষড়যন্ত্র করতে চাইছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের এক স্থায়ী কমিটির সদস্য  জানিয়েছেন, বুধবারের বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল নির্বাচন কমিশনে যেতে পারে। প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন বিএনপিদলীয় কয়েকজন নেতা। তারা আসন্ন পৌর নির্বাচন সুষ্ঠু করতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের কাছে লিখিত আবেদন জানাবেন।

মতামত...