,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

প্রশাসন নিরপেক্ষ থাকলে হত্যাকারীদের গ্রেফতার হবে-মেয়র

aনিজস্ব প্রতিবেদক, বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও নগর ছাত্রলীগের কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য মো. নাসিম আহমেদ সোহেল হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবীতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার উদ্যোগে এক প্রতীকি অনশন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। ৭ এপ্রিল বৃহষ্পতিবার সকাল থেকে নগরীর প্রেসক্লাব চত্বরে আয়োজিত প্রতীকি অনশন কর্মসূচীর সমাপনি বক্তব্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, প্রকাশ্য দিবালোকে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মেধাবী ছাত্র নাসিম আহমেদ সোহেলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। যা অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সিসি ক্যামেরায় ধারন করা আছে।এ হত্যাকান্ডে জড়িতদের মধ্যে কয়েকজনকে সনাক্ত করে পুলিশ প্রশাসন গ্রেফতার করতে সক্ষম হলেও হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত মুলহোতারা এখনও গ্রেফতার হয়নি -যা দুঃখ জনক ও অনাকাঙ্খিত। মেয়র আশা করেন, প্রশাসন নিরপেক্ষ অবস্থান থেকে হত্যাকারীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হবেন। তিনি বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠিত প্রিমিয়ার বিশ্ববিদালয়ের উজ্বল ভাবমূর্তিকে বিনষ্ট করার অভিপ্রায়ে একটি মহল পরিকল্পিতভাবে সোহেল এর মত একজন দক্ষ সংগঠককে হত্যা করেছে। মেয়র আশা করেন, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নিরপেক্ষ অবস্থান থেকে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ও ভাবমূর্তি অক্ষুন্ন রাখতে সচেষ্ট থাকবে। তিনি বলেন, মনে রাখতে হবে কোন দানশীল ব্যক্তি বা শিক্ষানুরাগী বা কোন প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মত কোন প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার পর তার মালিকানা দাবী করার কোন যৌক্তিক কারন থাকতে পারে না। প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানগুলো দেশের প্রচলিত আইন দ্বারা পরিচালিত হয়। অনুরূপভাবে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় সিটি কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠা করলেও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন দ্বারা বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় আইন দ্বারা সেটি পরিচালিত হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় এর মালিকানা কোন বিশেষ ব্যক্তি দাবী করতে পারে না। মেয়র আশা করেন, যে কোন প্রতিষ্ঠান সার্বজনীন হলেই তার সুনাম বৃদ্ধি পায়। প্রতীকি অনশন চলাকলে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সহ সভাপতি রেজাউল আলম রনি। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মহানগর ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মো. শাকিল। অনশন কর্মসূচী চলাকালে বক্তব্য রাখেন নগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ,মঞ্জুর হোসেন, মোহাম্মদ ইছা, ডা. ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী, ডা. তিমির বরন চৌধুরী, প্রকৌশলী বিজয় কিষান চৌধুরী, সাবেক ছাত্র নেতা আবদুল মন্নান ফেরদৌস, এড. চন্দন তালুকদার, কাউন্সিলর নাজমুল হক ডিউক, হাসান মুরাদ বিপ্লব, সাবেক ছাত্রনেতা দিদারুল আলম দিদার, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, জেসমিন পারভীন জেসি, সাবেক ছাত্র নেতা সুমন দেবনাথ, আশরাফুল আলম আরজু, ওয়াহিদুল আলম শিমুল, জাবেদুল আলম সুমন, হেলাল উদ্দিন, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা আবদুল্লাহ আল মামুন, ইয়াছির আরাফাত, ফয়সাল বাপ্পী, হেলাল উদ্দিন আহমেদ, মহানগর ছাত্রলীগের সহ সভাপতি মিথুন মল্লিক, চবি সাবেক যুগ্ম সম্পাদক নুর মোহাম্মদ নাজমুল, আরিফ উল্লাহ,
সহ সভাপতি সরওয়ার উদ্দিন, এম কায়সার উদ্দিন,যুগ্ম সম্পাদক ওয়াহেদ রাসেল, মইনুর রহমান মঈন,সাংগঠনিক সম্পাদক মঈন শাহরিয়ার, সম্পাদক, উপসম্পাদক মন্ডলীর সদস্য অছিউর রহমান, সনেট চক্রবর্তী, মনির চৌধুরী, ইমরান আলী মাসুদ, নাসির উদ্দিন কুতুবী, এস এম হুমায়ুন কবির আজাদ, মোরশেদুল আলম, মিজানুর রহমান প্রমূখ ও নগর আওতাধীন বিভিন্ন কলেজ, বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়, থানা ও ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ । উক্ত কর্মসূচীতে অন্যান্য বক্তারা বলেন, সোহেল শহীদ হওয়ার পরও যারা তার লাশ দেখতে যাননি, জানাযা নামাজেও উপস্থিত হননি, এমনকি মর্গেও লাশ দেখতে যাননি, তাতেই প্রমানিত হয় একটি মহল ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে খুনীদের বাঁচাতে তৎপরতা চালাচ্ছে। তাছাড়াও সোহেল হত্যাকারীদের বিচার এর দাবীতে চলমান আন্দোলনকে নস্যাৎ করতে এবং একটি মহল প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়কে ব্যক্তিস্বার্থে কর্তৃত্ব নেওয়ার জন্য পায়তারা করছে। এমনকি ঐ মহলটি সোহেল এর হত্যার বিচার প্রক্রিয়াকে দমিয়ে রাখতেও অপপ্রয়াস চালাচ্ছে। বক্তারা আরো বলেন, সোহেল এর মৃত্যুর ৯ দিন পার হওয়ার পরও চিহ্নিত আসল খুনিরা এখনও গ্রেফতার হয়নি। অবিলম্বে খুনিদের সনাক্ত করে গ্রেফতারের দাবী জানান। অনশন কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন, জামালখান ওয়ার্ড আওয়ামীযুবলীগের সভাপতি মো.আইয়ুব,কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য শহিদুল কাউসার, সুজিত দাশ, জালাল আহমদ দুলাল, মিনহাজুল আবেদীন সায়েম, আবদুল মান্নান, মো. ফারুক চৌধুরী, এ এম মহিউদ্দিন, মহিউদ্দিন আলী নুর, তানভীর আহমেদ রিংকু, আবদুল্লা আল মামুন রুমেল, মো. সালাহ উদ্দিন, অশেক দেব লিটন, মুকসুদ আলী, সুমন চৌধুরী, গৌতম হাজারী, আবু সুফিয়ান, আরিফ মঈন উদ্দিন, ইয়াকুল ইসলাম টিপু, আবদুল্লাহ আল মামুন, মো. আইয়ুব, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় সাধারন ছাত্রদের পক্ষ থেকে কামরুজ্জামান ফয়সার, টুম্পা দাশ, অনুপ বড়–য়া প্রমূখ।

বি এন আর/০০১৬/০০৪/০০৭/০০০৪৮৭১/এস

মতামত...