,

সর্বশেষ
bnr ad 250x70 1

প্রশিক্ষিত হামলাকারীরাই দেশে খুনের মিশনে নেমেছেঃ আইজিপি

IG POLICনিজস্ব প্রতিবেদক,বিডি নিউজ রিভিউজ ডটকমঃ ঢাকা, মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতেই হত্যা করা হয়েছে মার্কিন দূতাবাসের সাবেক কর্মকর্তা জুলহাস ও তার বন্ধু তনয়কে। ময়না তদন্ত শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান ময়না তদন্তকারী চিকিৎসক।

পুলিশের মহাপরিদর্শক একেএম শহিদুল হক জানিয়েছেন, শিক্ষক, লেখক ও ব্লগার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে কলাবাগানের জোড়া খুনের মিল রয়েছে, একই গোষ্ঠী এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে থাকতে পারে।

জোড়া খুনের ঘটনায় অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে কলাবাগান থানায় দু’টি মামলা করা হয়েছে।

মাথায় ও ঘাড়ে একের পর এক আঘাত করে হত্যা করা হয় মার্কিন দূতাবাসের সাবেক কর্মকর্তা জুলহাস ও তার বন্ধু তনয়কে। ময়না তদন্ত শেষে এমনটাই জানিয়েছেন চিকিৎসক সোহেল মাহমুদ। এছাড়া, হত্যাকাণ্ডের ধরণ দেখে প্রশিক্ষিত গোষ্ঠী এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে থাকতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে পুলিশ মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক জানিয়েছেন, বিষয়টি তদন্ত করছেন তারা। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে অতীতের শিক্ষক, লেখক, ব্লগার হত্যার সঙ্গে মিল রয়েছে উল্লেখ করে মহাপরিদর্শক বলছেন, একই গোষ্ঠী এ হত্যাকাণ্ড ঘটাতে পারে।

তিনি বলেন, ‘মামলা হয়েছে, তদন্ত শুরু হয়েছে। এটার বিস্তারিত জানতে আমাদের আরো সময় দিতে হবে। অতীতে যেসব হত্যাকাণ্ড হয়েছে, যেভাবে হত্যা করা হয়েছে, তার সাথে এর মিল রয়েছে। সেখান থেকে আমাদের ধারণা তারাই এটা করতে পারে। জঙ্গিবাদ,সন্ত্রাসবাদ সবকিছুর বিরুদ্ধে আমাদের জিরো-টলারেন্স। আমাদের সর্ব শক্তি প্রয়োগ করে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।’

এদিকে নিহত তনয় পরিস্থিতির শিকার বলে মনে করছেন তার পরিবার। পাশাপাশি জুলহাসের সঙ্গে তার সম্পর্কের বিষয়টি তার পরিবার জানে না বলেও মন্তব্য করেন তনয়ের মামা।

সোমবার সন্ধ্যায় উত্তর কলাবাগানের একটি বাসায় কুরিয়ার সার্ভিসের কর্মী পরিচয়ে পাঁচ থেকে সাতজন ভবনে প্রবেশ করে মার্কিন দূতাবাসের সাবেক কর্মকর্তা জুলহাসসহ দুইজনকে কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হলেও এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। একইসঙ্গে, হত্যাকাণ্ডের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষী ব্যক্তিদের দ্রুত খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনতেও সরকার যথাযথ পদক্ষেপ নেবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জন কারবি।

তিনি বলেন, ‘ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসের সাবেক সদস্য ও আমাদের সাবেক সহকর্মী জুলহাস মান্নানের ওপর বর্বরোচিত হামলায় আমরা ক্ষুব্ধ। এ ধরণের অযৌক্তিক ও অমার্জনীয় হত্যাকাণ্ডে নিন্দা জানানোর ভাষা আমাদের জানা নেই। বাংলাদেশ তথা বিশ্বব্যাপী মানবাধিকার ও সমকামীদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় তার অবদান শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি আমরা। সেই সঙ্গে, তার পরিবারের প্রতিও গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি।’

 

মতামত...